সিপিবি’র আয়োজনে কমরেড ইসমাইল হোসেন স্মরণানুষ্ঠান

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সাবেক সদস্য কমরেড ইসমাইল হোসেনের ১৫তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সিপিবি নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির উদ্যোগে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।


মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) বিকাল ৪টায় সিপিবি নারায়ণগঞ্জ জেলা কার্যালয়ে এ সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনায় নেতৃবৃন্দ বলেন, কমরেড ইসমাইল হোসেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সদস্য ছিলেন। তাঁর জন্ম চাঁদপুরের মতলব থানায়। তিনি নারায়ণগঞ্জ হোসিয়ারী শ্রমিকদের আন্দোলন ও সংগঠনের সাথে যুক্ত ছিলেন। তিনি এক সময় হোসিয়ারীতে চাকরি করতেন, পরবর্তীতে একজন ছোট মালিক হয়েছিলেন। মালিক হবার পরও তিনি পিছন থেকে হোসিয়ারী শ্রমিকদের আন্দোলন ও সংগঠন গড়ে তোলার কাজ করতেন।

কমরেড ইসমাইল হোসেন ছিলেন একেবারে প্রচারবিমুখ শান্ত স্বভাবের এক মানুষ। তাঁর কোন অহংকার ছিল না, চাকচিক্ক ছিল না। স্ত্রী শাহানারা বেগমকে পার্টিতে এনেছিলেন, তাকে নারী আন্দোলনের সাথে যুক্ত করে দিয়েছিলেন। তিনি (শাহানারা বেগম) এখনো আমাদের পার্টির নারায়ণগঞ্জ জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য আছেন। মেয়ে ফৌজিয়া খানম জলি ছাত্র ইউনিয়নে যুক্ত ছিল। সে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন নারায়ণগঞ্জ জেলা সংসদের সভাপতিও ছিল এক সময়ে। এখন একটা স্কুলের শিক্ষক। ছোট ভাই হান্নানকে দলের সাথে যুক্ত করেছিলেন।

কমরেড ইসমাইল পরিণত বয়সের আগেই শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন। বেশ কয়েক বছর বিভিন্ন চিকিৎসা করার পরও আর সুস্থ হলেন না। ২০০৬ সালের ১৯ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জে অপরিণত বয়সে মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর এ মৃত্যু খুবই দুঃখজনক!

একজন কমিউনিস্টের যত গুণাগুণ থাকা দরকার তার সবকিছুই ছিল কমরেড ইসমাইল হোসেনের মধ্যে। আচরণের দিক থেকে তিনি ছিলেন খুব উঁচু মাপের। উন্নত মানবতাবোধ, উন্নত নৈতিকতা ও আন্তরিকতায় ছিলেন অতুলনীয়। এই কমরেড এর কর্ম ও জীবন থেকে আমাদের অনেক কিছু শিক্ষা নেবার আছে।

আলোচনা সভায় জেলা কমিটির সভাপতি কমরেড হাফিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, সিপিবি নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড শিবনাথ চক্রবর্তী, জেলা কমিটির সদস্য কমরেড দুলাল সাহা, বিমল কান্তি দাস, আঃ হাই শরীফ, শাহানারা বেগম, সুজয় রায় চৌধুরী বিকু, ইকবাল হোসেন, কৃষ্ণা ঘোষ, শোভা সাহা, দিব্যেন্দু মিত্র, মাইনউদ্দিন মানিক, মনিরুজ্জামান চন্দন, মো. নাসির উদ্দিন ও বিজয় কর্মকার।