সি‌টি নির্বাচন ও আইভী নি‌য়ে এড. শাখাওয়াত যা বললেন..

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়ন পত্র ক্রয় করেছেন মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি এড. শাখাওয়াত হোসেন খান। রবিবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে জেলা নির্বাচন অফিস থেকে তিনি এ মনোনয়ন ক্রয় করেন।

পরে সাংবাদিকদের এড. শাখাওয়াত বলেন, বর্তমানে এ দেশের মানুষের ভোট অধিকার নেই। তাই বিএনপিসহ অনেক গুলো দল এই সরকারের অধিনে যে কোন স্থানীয় নির্বাচনে অংশগ্রহন করছে না। তবে দল বলেছে যে যদি কেউ স্বতন্ত্র ভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহন করতে চায় তাহলে সে করতে পারে। আমি আজকে নমিনেশন পেপার সংগ্রহ করলাম, আমি দলের সাথে যোগাযোগ করেছি। দল যদি নির্বাচনে অংশগ্রহন করে তাহলে আমি ধানের শীষ মার্কাটা চাইবো, যদি না দেয় তাহলে আমি মনোনয়ন প্রত্যাহার করবো। আর দল যদি কেউকেই প্রতীক না দেয় তাহলে আমি মানুষের সার্থে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহন করবো।

তিনি বলেন, বর্তমানে তো মানুষের তো ভোটের অধিকারই নাই। তাই দল যে সিদ্ধান্ত নিছে সেই সিদ্ধান্তের প্রতি আমরাও আস্থাশীল। আমরা চাচ্ছি নারায়ণগঞ্জে একটি সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হোক। ওনারা আবারো ইভিএমএর মাধ্যমে ভোটগ্রহন করার প্রস্ততি নিচ্ছে। এ নির্বাচনে যাতে ব্যালটের মাধ্যমে ভোটগ্রহন করা হয় সেই আহ্বান করবো।

তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জে আমিসহ অনেকই অন্যয়ের বিরুদ্ধে সব সময় সোচ্চার। নারায়ণগঞ্জে একটি নৃশংস হত্যাকান্ড ঘটেছিলো, সে ক্ষেত্রে এনসিসির বর্তমান যে মেয়র রয়েছেন ডা. সেলিনা হায়াত আইভী প্রতিবাদ বা বিচারের জন্য কোন রকমের পদক্ষেপ গ্রহন করেন নাই। এছাড়া যারা আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ছিলেন তারাও কোন প্রতিবাদ করেন নাই। আমাদের প্রচেষ্টায় তথা নারায়ণগঞ্জবাসীর সহযোগীতায় আন্দোলনের মুখে একটা বিচার করাতে পেরেছিলাম। আমরা মনে করি নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের যে দুর্বস্থা, এই অবস্থা থেকে আলোর পথে যাওয়ার জন্য স্বচ্ছ নিরপেক্ষ নির্বাচন দরকার। আমি মনেকির সামনে যে নির্বাচনটি হবে সেটি নিরপেক্ষ নির্বাচন হয় সেটির বিষয়ে নির্বাচন কমিশন খেয়াল রাখবেন এবং ইভেএম প্রত্যাহার করে ব্যালট বক্সের মাধ্যমে ভোটগ্রহন করুন। আমরা আশা করি যদি জনগন তাদের ভোট সুন্দর ভাবে প্রয়োগ করতে পারে তাহলে আমরা বিপুল পরিমানে ভোট পেয়ে নির্বাচনে জয় লাভ করবো।

উল্লেখ্য, ৩০ নভেম্বর নির্বাচন কমিশন নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে। তফসিল অনুসারে মনোনয়ন পত্র দাখিলের শেষ তারিখ ২০২১ সালের ১৫ ডিসেম্বর (বুধবার)। ২০ ডিসেম্বর (সোমবার) মনোনয়ন বাছাই এবং ২৭ ডিসেম্বর (সোমবার) মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষদিন নির্ধারণ করা হয়েছে। আর ভোট গ্রহণ হবে ২০২২ সালের ১৬ জানুয়ারী (রোববার)।