সেন্টমার্টিনে ‘বিএইচ ট্যুর’ টিমের জন সচেতনতা

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনের পরিবেশ রক্ষায় প্লাষ্টিক ও বর্জ্য পরিষ্কার কার্যক্রম পালন করেছে ট্রাভেলার গ্রুপ বিয়ন্ড দ্যা হরিজন (বিএইচ)। এছাড়াও বর্তমান সময়ে করোনার প্রভাব বৃদ্ধি রোধে জনগণকে সচেতন করতে মাস্ক বিতরণ করেছে দ্বীপে ঘুরতে আসা ভ্রমণকারী এই দলটি।


সোমবার (২৪ জানুয়ারী) পর্যন্ত গত ৫ দিনের সফরে দ্বীপের বিভিন্ন অঞ্চল ঘুরে প্লাষ্টিক ও বর্জ্য পরিষ্কার করে বিয়ন্ড দ্যা হরিজন ট্যুর গ্রুপ। এছাড়াও ছেড়া দ্বীপের বিভিন্ন অংশে জমে থাকা প্লাষ্টিক বর্জ্য সংগ্রহ করে তারা।

বৈশ্বিক মহামারী কোভিড ১৯ ছড়িয়ে পড়ার আগে দ্বীপের পরিবেশ যতটা স্বাভাকিত ছিলো বর্তমান সময়ে তা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।

পরিবেশবিদরা বলছেন, সৈকতে নাইলন ও প্লাস্টিকজাত চিপস প্যাকেট, আচারের প্যাকেট, পলিথিন, ক্যান, চায়ের কাপ, বোতল, পানির বোতল, পানির গ্লাস, প্লেট, ডাবের পানি খাওয়ার স্ট্র, খাবার প্যাকেট, ভাঙা চশমা বা কাঠি, মাছ ধরার জালের টুকরো, নাইলন দড়ির টুকরোসহ বিভিন্ন অপচনশীল বর্জ্য দূষিত করছে দ্বীপটিকে। প্রায় ৮ বর্গ কিলোমিটার উত্তর-দক্ষিণ দৈর্ঘের এই দ্বীপটিতে ১৮৯০ সালে ১৩ টি পরিবার বসতি স্থাপন করে। পরবর্তীতে পর্যটকদের যাতায়াত বাড়তে থাকলে জীব বৈচিত্রে মারাত্মক প্রভাব পড়তে শুরু করে। যার ফলে এই দ্বীপে বসবাসকারী ৬৮ প্রজাতির প্রবাল,১৫১ প্রজাতির শৈবাল, ১৯১ প্রজাতির মোলাস্ক বা কড়ি জাতীয় প্রাণী,৪০ প্রজাতির কাঁকড়া, ২৩৪ প্রজাতির সামুদ্রিক মাছ, ৫ প্রজাতির ডলফিন, ৪ প্রজাতির উভচর প্রাণী, ২৮ প্রজাতির সরীসৃপ প্রাণী,১৭৫ প্রজাতির উদ্ভিদ, ২ প্রজাতির বাদুর সহ নানা প্রজাতির প্রাণীর প্রজনন বৃদ্ধি ও রক্ষায় দ্বীপের পরিবেশ অত্যন্ত ঝুঁকির মুখে।

এসব বিষয়কে গুরুত্বদিয়ে বিএইচ ট্যুর গ্রুপ পরিবেশ রক্ষায় আবর্জনা পরিষ্কার কর্মসূচি পালন করেছে। এছাড়াও নতুন বছরে কোভিড ১৯ এর অমিক্রণ ভ্যারিয়েন্ট দ্রুত সংক্রামক হওয়ায় ভ্রমণকারীদের সচেতন করতে মাস্ক বিতরণ করে দলটি। পরিবেশ রক্ষার এমন অভূতপূর্ব আয়োজনের  আয়োজক ছিলো বিএইচ ট্যুর গ্রুপের এডিমন ফাতেমা বুশরা, এ্যাক্সিকিউটিভ এডমিন তানজিমুল হাসান মায়া’জ। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সিনিয়র সাংবাদিক অলিদুর রহমান অল, সাংবাদিক ইউসুফ আলী প্রধান  আয়োজনে অংশ নেন। পরিচ্ছন্ন সেন্টমার্টিন ও নিল পানিতে মুগ্ধ হয়ে এর রক্ষণা বেক্ষণের দায়িত্ব সকলের বলে আশা প্রকাশ করেন গ্রুপে অংশ নেয়া রক্ত যোদ্ধা ও ব্যবসায়ী ছবির হোসেন।

প্লাষ্টিক – বর্জ্য পরিষ্কার অভিজানে বিএইচ ট্যুর গ্রুপের সদস্যদের চোখে পড়ে একটি ব্যাতিক্রম মাছের ম্যুরাল। যা তৈরী করা হয়েছে সৈকতে পড়ে থাকা প্লাষ্টিকের বোতল ও চিপসের প্যাকেট ব্যবহার করে। এ দৃশ্য দেখে গ্রুপের সদস্যরা ব্যাতিক্রম এই উদ্দ্যোগকে স্বাগত জানায়।

জানা যায়, প্লাষ্টিক দিয়ে তৈরী মাছের এই ম্যুরাল তৈরীতে আর্থিক সহযোগিতা কেরেছেন, কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশনের (কেজিএফ) আর্থিক সহায়তায় শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) ফিশারিজ, অ্যাকোয়াকালচার ও মেরিন সায়েন্স অনুষদ এর উদ্যোক্তা। তৈরিতে সহযোগিতায় ছিলেন চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ অনুষদ ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থী।