সেবা প্রান্তিক পর্যায়ে পৌঁছে দেয়াই উদ্দেশ্য: মোস্তাফিজ

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ জেলার প্রতিটি থানায় বিট পুলিশিংয়ের উদ্যোগে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী সমাবেশ এবং র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দিনব্যাপী প্রতিটি থানার অধীনস্থ বিটগুলোর উদ্যোগে এ আয়োজন করা হয়।

১৭ অক্টোবর দিনব্যাপী উক্ত আয়োজনে কেমন সাড়া পেলেন নারায়ণগঞ্জবাসীর এবং এ আয়োজনের সফলতা নিয়ে কতটুকু আশাবাদী নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ? এরকমই প্রশ্নের জবাব লাইভ নারায়ণগঞ্জকে দিয়েছেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(প্রশাসন) মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান।

মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আইজিপি স্যারের নির্দেশনায় আমাদের আজকের র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাধারণ মানুষের ব্যাপক সাড়া পেয়েছি, তারা স্বতঃফূতোবে অংশগ্রহণ করেছে। মূলত আজকের বিট পুলিশিংয়ের এ কার্যক্রমের উদ্দেশ্যে হলো, আগে ধারণা ছিল থানায় বা তদন্ত কেন্দ্রে আসা নিয়ে ব্যাপক ঝামেলা পড়তে হয়তো। বর্তমানে সে ধারণা জনগণের কাছ থেকে কেটে গেছে। জনগণের সেবা প্রান্তিক পর্যায়ে পৌঁছে দেওয়াই বিট পুলিশিংয়ের মূল উদ্দেশ্যে। বিট পুলিশিং শুধু যে নারী নির্যাতন নিয়েই কাজ করবে তা নয়, মানুষের যেকোন সমস্যা পুলিশকে গিয়ে বলতে হবে না। বরং, পুলিশই মানুষের কাছে এসে তাদের সমস্যার কথা জানতে চাইবে।

শনিবার দিনব্যাপী নারায়ণগঞ্জে বিট পুলিশিংয়ের আয়োজন-

সদর মডেল থানা এলাকার ১০টি বিটে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৬, ১৭ ও ১৮ নং ওয়ার্ডের র‌্যালি ও সমাবেশে অংশগ্রহণ করে সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান বলেন, আজকের এই মিছিল থেকে জনসাধারণকে বলতে চাই- পুলিশ জনগণের বন্ধু। আমরা জণগনের সাথে মিলে কাজ করতে চাই, জনগনের পাশে সব সময় পুলিশ আছে। তাই, বিট পুলিশিং কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আমাদের প্রতি ওয়ার্ডে ২ জন করে পুলিশ দিয়েছি।

ফতুল্লা মডেল থানা এলাকার ১২টি বিটে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় ৩ নং ওয়ার্ডের র‌্যালি ও সমাবেশে অংশগ্রহণ করে ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো.আসলাম হোসেন বলেন, ধর্ষকদের শাস্তি মৃত্যুদন্ড করেছে সরকার, এটা তখনই কার্যকর হবে যখন আলামত সবকিছু ঠিক থাকবে, সাক্ষ্য ঠিক থাকবে, তাহলেই বিচার সঠিকভাবে হবে। নারীর প্রতি, মায়ের প্রতি যারা সঠিক সম্মান দেখাতে পারে না, ধর্ষণের মতো খারাপ কাজ করে তারা কুলাঙ্গার।

 

বন্দর থানা এলাকার ১৪টি বিটে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় একটি র‌্যালি ও সমাবেশে অংশগ্রহণ করে বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো.ফখরুদ্দিন বলেন, জনগণকে সচেতনায় আজকের এই আয়োজন। সবাই সচেতন থাকবেন এবং যেকোন সমস্যার সমাধানে পুলিশের সহায়তা নিবেন।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানা এলাকার ১০টি বিটে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় ৪ নং বিট পুলিশিংয়ের সমাবেশ ও র‌্যালিতে যুক্ত হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) কামরুল ফারুক বলেন, নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে জনগণকে সচেতন করা এবং এমন জঘন্য কাজের বিরুদ্ধে মতবাদ গড়ে তোলাই এ কার্যক্রমের লক্ষ্য।

রূপগঞ্জ থানায় এলাকার ৯টি বিটে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় ৬ নং বিট পুলিশিংয়ের সমাবেশ ও র‌্যালিতে যুক্ত হয়ে রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, সারাদেশে ধর্ষণ প্রতিরোধেই আমাদের আজকের কার্যক্রম। স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের ডিউটি অফিসারের নাম্বার দিয়ে যাচ্ছি, যেকোন সমস্যায় তোমরা যোগাযোগ করবে। বিন্দুমাত্র ছাড় দেয়া হবে না রেপিস্টদের।

সোনারগাঁও থানা এলাকার ১১টি বিটে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় ১০ নং বিটে উপস্থিত থেকে সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, নারী নির্যাতনসহ যেকোন ধরনের অপরাধে পুলিশ সচেতন রয়েছে। ঘটনা ঘটলে আমাদের জানানোর সাথে সাথেই আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

0