সোনারগাঁয়ের বাগানে আগাম মুকুল, ফরমালিনমুক্ত ফলের প্রত্যাশা

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জঃ মৌসুমী ফল আম, চতুর্ধিকে ধরেছে প্রচুর আম ও লিচুর মুকুল। নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলাকে দেশের সুস্বাদু মৌসুমী ফলের এলাকা বলা হয়ে থাকে। বৈশাখ মাসের প্রথম সপ্তাহেই দেশের যে কোন প্রান্ত থেকে সোনারগাঁওয়ের আম লিচু আগে বাজারে আসে। দেশের সাধারণ মানুষের চাহিদা থাকে সোনারগাঁওয়ের বিভিন্ন এলাকায় বাগানগুলো থেকেই।


বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সোনারগাঁওয়ে ঘুরতে আসা অতিথি ও ব্যবসায়ীরা জানান, এবার অনেক গাছে আগাম মুকুল ধরেছে। ঘণ কুয়াশা যদি না থাকে তাহলে আম ও লিচুর ফলন ভাল হবে এবং ব্যাপারীরাও লাভবান হবেন।

এই শীতের মাঝখানে যদি হালকা কিছু বৃষ্টি হয় তাহলে আম লিচু আরো রসালো হবে বলে আশাবাদ জানান স্থানীয়রা। চৈত্রের খরাতে বৃষ্টির অভাবে আম লিচু তেমন মোটা তাজা হয় না। সোনারগাঁওয়ে আম লিচুর বাগানগুলোতে যেমন প্রশাসনের দৃষ্টি রয়েছে, তেমনি মিডিয়া ও সাধারন মানুষের দৃষ্টি রয়েছে। যাতে কেউ ফলে ফরমালিন মিশাতে না পারে। সব সময় সোনারগাঁওয়ের আম ও লিচু ফরমালিন মুক্ত থাকে, এবারও ফরমালিন মুক্ত থাকবে আশা করি।

সোনারগাঁও উপজেলার ১০ টি ইউনিয়ন ও ১ টি পৌরসভার মাঝে কয়েকটি ইউনিয়নে আম লিচুর জন্য উওম। যেমন মোগরাপাড়া, সোনারগাঁও পৌরসভা ও বৈদ্যার বাজার ইউনিয়ন- উল্লেখযোগ্য এই ৩টি ইউনিয়ন সোনারগাঁওয়ে আম লিচুর জন্য বিখ্যাত। অন্যান্য ইউনিয়নগুলোতে কিছু কিছু আম লিচু হয়ে থাকে।

যুগ যুগ ধরে কালের সাক্ষী হয়ে দাড়িয়ে আছে ঈশাঁখার রাজধানী সোনারগাঁও। আর এই নামটির সুনাম ধরে রেখেছে সোনারগাঁওয়ের  বিখ্যাত আম লিচুর মাধ্যমে। যদি সোনারগাঁওয়ের আম লিচু না থাকত তাহলে সোনারগাঁওয়ের নাম কিছুটা অম্লান হয়ে যেত । যে সব এলাকা  গুলোতে সাধারণত আম লিচুর বাগান গুলো হয়ে থাকে, যেমন মোগড়াপাড়া, চিলারবাগ, দিঘিরপাড়, তাঁজপুর, বৈদ্যারবাজার, পানাম, যাদুঘর, হাতকোফা, টিপরদি, গাফতলী, হাড়িয়া ভট্টপুর গোহাট্টা, সাদিপুর মিরাবাড়ী, ষোলোপাড়া, কামার গাঁও, সাচিলাপুর, রহমতপুর, পাঁচপির দরগা, মাধবপুর, বাড়ীমজলিস, আরো বিভিন্ন গ্রাম গুলোতে সোনারগাঁওয়ের আম লিচুর বাগান হয়ে থাকে। সুস্বাদু রসালো  আম লিচু যখন গাছে গাছে পাকা ধরে তখন যে কেউ দেখলে মুখে জল চলে আসবে ।

0