সোনারগাঁয়ে অপহরণ করে রাতভর গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৫

0

সোনারগাঁ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সোনারগাঁয়ে এক গার্মেন্টস কর্মীকে অপহরণ করে রাতভর গণধর্ষণ করেছে। এ সময় পুলিশ ৫ ধর্ষককে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেপ্তার করেছে।

সোমবার (৭ অক্টোবর) রাতে উপজেলার ব্রাহ্মণগাঁও গ্রামের হালিম মিয়া বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ২ ধর্ষক পালিয়ে যায়।

গ্রেপ্তারকৃত ধর্ষকরা হলেন ব্রাহ্মণগাঁও গ্রামের মুজিবুর রহমানের বখাটে ছেলে আবু সাইদ, রেহাজউদ্দিনের ছেলে ইমরান, নবি হোসেনের ছেলে রনি, আবু সিদ্দিকের ছেলে আবুল হোসেন ও ভট্টু মিয়ার ছেলে মাসুদ। পলাতকরা হলেন আমির হোসেনের ছেলে আরিফ ও সামসুল হকের ছেলে জাহাঙ্গীর।

ভুক্তভোগী জানান, তিনি রূপগঞ্জের একটি গার্মেন্টসের শ্রমিক। সোমবার সন্ধ্যা ৬ টার ছুটির পর বাড়ি গাউছিয়া ফেরার জন্য একটি সিএনজিতে উঠেন। সিএনজিটিতে আগে থেকেই বসেছিলেন ধর্ষক জাহাঙ্গীর। গাউছিয়া যাওয়ার পর নামতে চাইলে জাহাঙ্গীর তাকে বাঁধা দেয়। পরে জাহাঙ্গীরের কথা মতো গাড়িটি চালিয়ে যায়। এসময় মুখে সাদা রঙের স্কচটেপ লাগিয়ে বিভিন্ন স্থানে ঘুরায়। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তালতলা এলাকায় হালিম মিয়ার ঘরে নিয়ে আটকে রাখে ভুক্তিভোগীকে। ওই সময় হালিম মিয়া বাড়িতে ছিলেন না। রাত সাড়ে তিনটার দিকে হালিম মিয়া বাড়িতে এসে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ৫ ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে ও ২ জন পালিয়ে যায়।

তালতলা ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. আহসানউল্লাহ বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দুজন পলাতক রয়েছে। পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ভিকটিম উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, গণধর্ষণের ঘটনার মামলা হয়েছে। অভিযুক্তদের আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

0