সোনারগাঁয়ে ইটের আঘাতে ১০ দিন পর মারা গেলো দ্বীন ইসলাম

0

সোনারগাঁ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সোনারগাঁ পিরোজপুর ইউনিয়নের নয়াগাঁও গ্রামের সালাউদ্দিনের ছেলে দ্বীন ইসলাম(২৬) সহপাটির ইটের আঘাতে আহত দ্বীন ইসলাম ১০ দিন পর মারা গেছেন।

সোমবার সকালে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে ৪ অঅক্টোবর সকালে পুকুরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে একই গ্রামের আসাদুলের ছেলে আহসান উল্লাহর সঙ্গে তর্কাতর্কের এক পর্যায়ে ইটের আঘাতে মারাত্বক যখম হোন দ্বীন ইসলাম। সেদিনই সোনারগাঁয়ের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে নিয়ে তার মাথায় শেলাই করা হয়। এর কয়েকদিন পর পেটের অসুখে আক্রান্ত হলে দ্বীন ইসলাম মহাখালী আইসিডিডিআরবি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরে আসেন। এরপর গতকাল ১৪ অক্টোবর সোমবার সকালে ফের বমি ও মাথা ঘোরাসহ অসুস্থ্য বোধ করলে তাকে আবার হাসপাতালে নিয়ে যান পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় দ্বীন ইসলামের পরিবার ও স্বজনদের দাবি আহসান উল্লাহর ইটের আঘাতেই তার মৃত্যু হয়। এর প্রতিবাদে দ্বীন ইসলামের চাচা হাজী আলাউদ্দিনের নির্দেশে উত্তেজিত লোকেরা আহসান উল্লাহর বাড়িতে লুটপাট ও ভাঙচুর চালায়। দ্বীন ইসলামের মৃত্যুর খবরে পলাতক রয়েছে আহসান উল্লাহ। পুলিশ এসে ময়না তদন্তের জন্য লাশ থানায় নিয়ে গেছে।

সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান বলেন, লাস ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। হত্যা মামলার অভিযোগ পেয়েছি, মামলার প্রস্তুতি চলছে।

0