সোনারগাঁয়ে হাতে-নাতে ৪ ডাকাত ধরা!

0

স্টাফ করেপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ৭ বছর পর কুয়েত থেকে দেশে ফিরেছে আবির। এত সময় পর দেশে আসায় পরিবার-আত্মীয়দের জন্য অনেক উপহার এনেছে সে। ঢাকা শাহজালাল বিমানবন্দর হতে ট্যাক্সি ভাড়া করে কুমিল্লার উদ্দেশ্যে রওনা দেয় আবির। রাত সবে মাত্র গভীর হলো, মহাসড়কের একপাশে থামিয়ে দেওয়া হলো ট্যাক্সি। হঠাৎ করেই চারপাশ থেকে কয়েকজন আগুন্তক গাড়ীর সামনে হাজির। প্রত্যেকের হাতে রামদা, চাপাতি ও ছুড়ির মতো ধারালো অস্ত্র। তার আবিরকে বলে ‘ জান চাইলে সব দিয়ে দে’। জীবন বাঁচাতে বিদেশ থেকে আনা সবই দিয়ে দিল আবির।

এমনইভাবে এক বিশেষ ডাকাত চক্রের হাতে প্রবাস থেকে সর্বহারা হয়েছেন অনেকেই। যারা সবে মাত্র বিদেশ থেকে এসেছেন, তারাই মূল টার্গেট এ ডাকাত দলের।

সোনারগাঁয় এ বিশেষ ডাকাত চক্রের ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। ডাকাতির প্রস্তুতিকালে এদের গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ বলছে, মহাসড়কে নিয়মিত ডাকাতির সঙ্গে জড়িত এরা।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) দিবাগত গভীর রাতে পিরোজপুর ইউনিয়নের আষাড়িয়ারচর ব্রিজের নিচ থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা গাছ কাটার করাত, রাম দা ও চাপাতি।

থানা সূত্রে জানা গেছে, গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মুন্সিগঞ্জ গজারিয়া এলাকার ইসমাইলের ছেলে আল আমিন (২৬), সাত্তারের ছেলে জুয়েল (২৯), পারভেজের ছেলে শান্ত (২১) ও বন্দর মদনগঞ্জের মিজানুর রহমানের ছেলে তুহিন (২১)।

এদের মধ্যে আল আমিনের বিরুদ্ধে ৬টি, জুয়েলের বিরুদ্ধে ৭টি ও শান্তর বিরুদ্ধে ৩টি ডাকাতির মামলা রয়েছে।

এ ব্যাপারে কথা হয় সোনারগাঁ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) আবুল কালাম আজাদের সাথে। তিনি লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, মহাসড়কে বেশ কয়েক বছর যাবত কাজ করে আসছে এক ডাকাত চক্র। কুমিল্লা, ফেনী, চাঁদপুর রুটে এরা ডাকাতি করে আসছে। এদের মূল টার্গেট থাকে, বিদেশী মালামাল নিয়ে যে সব যান চলাচল করে। এয়ারপোর্ট থেকে দেশের বাড়িতে ফেরা প্রবাসীদের পাকরাও করে এরা। এছাড়াও এরা গভীর রাতে মহাসড়কে গাছ ফেলে ডাকাতি করে থাকে। হাতিয়ে নেয় তাদের সম্পদ। সেই চক্রের পিছনে ২ বছর কাজ করে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

0