স্ত্রী বাপের বাড়ি যাওয়ায় স্বামীর আত্মহত্যা

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লায় স্ত্রীর সাথে অভিমান করে বিষাক্ত দ্রব্য পান করে আত্মহত্যা চেষ্টা করেন স্বামী। পরে আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসে প্রতিবেশীরা। প্রাথমিক পর্যায়ে বেচেঁ ফিরলেও পরদিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় না ফেরার দেশে চলে যায় সেই স্বামী।


মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় জেনারেল(ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালে মারা যায়। সংবাদ পেয়ে ফতুল্লা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশের সুরতহাল করেন।

নিহত স্বামীর নাম এরফান আলী(২৪)। তিনি নীলফামারীর সদর থানার হাওড়া সাকার পাড়ার মোজাম্মেল হকের ছেলে ও ফতুল্লা মডেল থানার মর্ডান হাউজিংয়ের ১নং সড়কের হাজী মো. আবুল কাশেমের ভাড়াটিয়া। নিহত এরফানুল রাজ মিস্ত্রির কাজ করে জিবিকা র্নিবাহ করতেন।

জানা যায়, গত ৮ অক্টোবর পারিবারিক বিষয়ে এরফান আলীর সাথে তার স্ত্রী হাসিনা বেগমে(২০)’র সাথে ঝগড়া হয়। ঝগড়াকে কেন্দ্র করে এরফান আলীর স্ত্রী তার পিত্রালয়ে চলে যায়। এতে নিহত এরফান আলী মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পরে।
মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুর দুইটার দিকে নিহত এরফান আলী তার রুমের ভিতর ঘুমের ঔষধ বা বিষাক্ত কোন দ্রব্য পান করিয়া অসুস্থ্য হয়ে পরে। পাশের ভাড়াটিয়া ও বাড়ীর মালিক বিষয়টি টের পেয়ে তাকে দ্রুত ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসারতবস্থায় পরদিন দুপুর ১২টায় ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে মারা যায়। সংবাদ পেয়ে ফতুল্লা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করেন।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) শাহাদাত জানান, প্রাথমিক  ভাবে যানা যায়, রাগ করে স্ত্রী বাপের বাড়ী চলে যাওয়ায় বিষাক্ত কোন দ্রব্য পান করে। পরে তাকে শহরের জেনারেল(ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসারতবস্থায় বুধবার দুপুরে এরফানুল মারা যায়। এ বিষয়ে নিহতের ভগ্নিপতি বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছেন। বাকিটা তদন্ত সাপেক্ষ বলা যাবে।

0