স্বপ্নের বাংলাদেশ এগিয়ে নিতে একটা মানুষ খুব দরকার: শামীম ওসমান

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ:
ধর্ম যার যার, উৎসব সবার৷ আমাদের দেশে এটা একটা জনপ্রিয় শ্লোগান৷ সেখানে যার যার ধর্ম সে সে পালন করবে এবং প্রতিটা ধর্মকে সবাই সম্মান করবে। আমরা শেখ হাসিনার কর্মী হিসেবে বিশ্বাস করি, যে যেই ধর্মের লোক হোক না কেনো, যারা ধর্মকে ভালোবাসে তারাই প্রকৃত ভালো মানুষ।

ধর্ম ও ভালো মানুষের ব্যাখ্যাটা এ ভাবেই দিলেন দেশের আলোচিত সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান৷ শুক্রবার (২৩ আগস্ট) সকাল ১০টায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রার উদ্বোধন হয়। শহরের দুই নম্বর রেলগেইটে বঙ্গবন্ধু সড়কে অনুষ্ঠানের অস্থায়ী মঞ্চে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শামীম ওসমান। শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন নারায়ণগঞ্জ রামকৃষ্ণ মিশন আশ্রমের অধ্যক্ষ স্বামী একনাথানন্দ মহারাজ।

শামীম ওসমান তার বক্তব্যে বলেছেন, এদেশে ষড়যন্ত্র চলে, চলছে এবং সামনে আরও ব্যাপক আকার ধারণ করবে। সেজন্য আপনাদের দোয়া ও আর্শীবাদ নিশ্চয় সৃষ্টিকর্তা কবুল করবেন। আমি আশা করি আপনারা শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করবেন, তিনি যেনো বাংলাদেশের মানুষের সেবা করতে পারেন। জাতির জনকের স্বপ্নের বাংলাদেশ যাতে সারাবিশ্বের মাঝে মাথা উচুঁ করে দাড়াতে পারে।

নবগঠিত জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের ও হিন্দু সম্প্রাদায়ের নেতৃবৃন্দকে ধন্যবাদ জানিয়ে শামীম ওসমান বলেন, আমি আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞ যে আমার মতো একজন ক্ষুদ্র মানুষটিকে এই ধর্মীয় অনুষ্ঠানে দাওয়াত করেছেন। এই পবিত্র অনুষ্ঠানে আমাকে দুটি কথা বলার সুযোগ করে দিয়েছেন। আমি আপনাদের কাছে আর্শীবাদ চাই ও দোয়া চাই।

তিনি আরও বলেন, আমাদের এই স্বপ্নের বাংলাদেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য একটা মানুষকে খুব দরকার আর তার নাম হচ্ছে জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনা। আমি আনুরোধ করবো সবাইকে শ্রী কৃষ্ণের জম্ম বাষির্কীতে আপনারা শেখ হাসিনার জন্য আর্শীবাদ ও দোয়া করবেন।

পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসবের শুভ উদ্বোধন শেষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা ঘোড়ার গাড়ি, রিকশা-ভ্যানে ভগবান শ্রীকৃষ্ণ ও শ্রীমতি রাধার প্রতীকী রূপে সেজে শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন। একই সাথে বড় বড় সাউন্ড সিস্টেমের আওয়াজে সরগরম হয় উঠে নগরী।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দীপক কুমার সাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনায় ছিলেন সাধারণ সম্পাদক শিখণ সরকার শিপন ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইর পরিচালক প্রবীর কুমার সাহা, হিন্দু কল্যাণ ট্রস্টের ট্রাস্টি পরিতোষ কান্তি সাহা, মেট্রো গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অমল পোদ্দার, কেন্দ্রীয় পূজা জাতীয় পরিষদের সদস্য বাসুদেব চক্রবর্তী, সাধু নাগ মহাশয় আশ্রমের সাধারণ সম্পাদক তারাপদ আচার্য্য, এনসিসি ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফি উদ্দিন প্রধান, মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ কুমার দাশ, মহানগর কমিটির সভাপতি লিটন চন্দ্র পাল, সাধারণ সম্পাদক নিমাই চন্দ্র দে, মহানগর পূজা কমিটির সভাপতি অরুন কুমার দাশ, সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার সাহা, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও সাংবাদিক উত্তম সাহা, সদর উপজেলা কমিটির আহ্ববায়ক রঞ্জিত মন্ডল, সুশীল দাস, অরুন দাশ, শংকর কুমার দাশ, শ্যামল বিশ্বাস, শিশির ঘোষ অমর, তপন গোপ সাধু, রিপন দাশ, কৃষ্ণ আচার্য্য প্রমুখ।

0