স্বামীর অবৈধ সম্পর্কের বলি স্ত্রী

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে রাস্তার পাশ থেকে পাওয়া আঞ্জুমান আরা নামের সেই নারীর খুনের ঘটনায় তার স্বামী কামরুল ও দেবর ফোরকানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।


অপহরণের পর খুনের অভিযোগ এনে গত ১৭ সেপ্টেম্বর ডেমরা থানায় মামলা করেন নিহত নারীর বাবা নুরুল আমিন।
মামলার আসামিরা হলেন- নিহতের স্বামী ঝালকাঠির সদর থানার বংকুড়া গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে কামরুল, তার ভাই ফোরকান, একই বাড়ির ভাড়াটিয়া শহিদুল ও ইব্রাহিমসহ অজ্ঞাত ২/৩ জন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ১৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে ডেমরার স্টাফ কোয়ার্টার বাসস্ট্যান্ড থেকে অপহরণ হন মিতু। ওইদিন মিতুর খোঁজ খবর না পেয়ে তার বাবা ডেমরা থানায় জিডি করেন। গত ১৭ সেপ্টেম্বর সকালে মৃতের লাশ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। অপহরণের পরই মাইক্রোবাসে মিতুকে কৌশলে হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেফতার দুজন মিতুকে হত্যার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছেন। ১২ বছর আগে কামরুলের সঙ্গে মিতুর বিয়ে হয়। ৭/৮ বছর আগে চাকরির সুবাদে তারা ডেমরার হাজীনগরে ভাড়া বাসায় চলে আসেন। পরবর্তীতে কামরুল ৩/৪ বছর ধরে কেমিক্যালের ব্যবসা করে আসছেন। তিনি পড়াশোনা কম জানেন বলে ওই ব্যবসার হিসাব রাখতেন মিতু। এদিকে ব্যবসা শুরুর পরই কামরুল বিভিন্ন মেয়েদের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তুললে সংসারে অশান্তি শুরু হয়। তখন কামরুল পথের কাঁটা ভেবে মিতুকে সরাতে অপহরণের পর হত্যার পরিকল্পনা করে।

উল্লেখ্য, গত ১৬ সেপ্টেম্বর ডেমরার স্টাফ কোয়ার্টার বাসস্ট্যান্ড থেকে অপহরণের শিকার হন মিতু। পরদিন ১৭ সেপ্টেম্বর তার লাশ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানার তাজমহল রোডে রাস্তার পাশে জমি থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

0