স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নিরাপদ নয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর হাতে: আবু হাসান টিপু

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বর্তমান করোনা মহামারীকালে তিন বেলা তিন মুটো খেয়ে বেঁচে থাকাই যেখানে সাধারণ মানুষের অসাধ্য হয়ে উঠেছে, এই সময়ে করোনা পরীক্ষায় ফী নির্ধারণ দুর্গত মানুষের কষ্টের বোঝা আরো বৃদ্ধি করবে। করোনার পরীক্ষা ও চিকিৎসার যাবতীয় দায়দায়িত্ব যেখানে সরকারের বহন করা দরকার, সেখানে এই দায়িত্ব এড়িয়ে ফী নির্ধারণ ভুক্তভোগী মানুষের উপর নতুন করে মরার উপর খাড়ার ঘা।

১ জুলাই সকালে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সিদ্ধিরগঞ্জ থানা কমিটির কর্মী সভাতে আবু হাসান টিপু এসব কথা বলেন।

বুধবার লাইভ নারায়ণগঞ্জকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তথ্য জানানো হয়।

স্বাস্থ্য খাতে চরম দুর্নীতি অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার কারণে অভিলম্বে স্বাস্থ্য মন্ত্রীকে বরখাস্থ করার দাবী করে আবু হাসান টিপু বলেছেন, ধারাবাহিক লুটপাত ও দুর্নীতির কারণে দেশের স্বাস্থ্যখাত এমনিতেই রুগ্ন হয়ে উঠেছে তার উপর বর্তমান করোনা মহামারীকালে চিকিৎসা সরঞ্জাম ক্রয় থেকে শুরু করে করোনা টেষ্ট ও চিকিৎসা কার্যক্রমে দেশে যে তুঘলকি কা- শুরু হয়েছে তার দায়দায়িত্ব স্বাস্থ্যমন্ত্রীকেই নিতে হবে। দেশবাসীর জীবন রক্ষার প্রশ্নে তার মতো একজন দায়িত্বজ্ঞানহীন ব্যাক্তির হাতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কোন ভাবেই নিরাপদ নয়।

রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকল বন্ধের সরকারী সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকলমসূহকে লুটেরাদের লুটপাতের খোরাক বানাতেই দেশের অবশিষ্ট ২৬টি পাটকল বন্ধের এক হটকারি সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। বিশ্বব্যাংকের প্রেসকিপশনে রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকলগুলোকে বছরের পর বছর পরিকল্পিতভাবে লোকশানী প্রতিষ্ঠানে পরিণত করে আজ তা ধ্বংশের চুরান্ত নক্সা বাস্তবায়ন করছে। অতীতের বিএনপি-জামায়াত সরকারের পদাংক অনুসরণ করে বর্তমানকালের করোনাসরকারও গোটা পাটশিল্প ও এই শিল্পের সাথে জড়িত কয়েক লক্ষ শ্রমিক ও পাটচাষীদের চরম বিপদের মধ্যে ঠেলে দিচ্ছে।

আবু হাসান টিপু বলেন রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকলের ব্যবস্থাপনার আমূল সংস্কার করে পাটকলের আধুনিকীকরণ, শ্রমিকদের চাকুরীর নিরাপত্তাসহ সরকারি মালিকানায় পাটকলের পুনরুজ্জীবন ঘটানো এখন সময়ের দাবী। তিনি বলেন, রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকলের অব্যবস্থাপনা, অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে সাধারণ শ্রমিকেরা শাস্তি পেতে পারেনা। বৈশ্বিক মহামারির এই দুর্দিনে জনগণের দায়িত্ব না নিয়ে সরকার মানুষকে নিয়তির উপর ছেড়ে দিতে পারেনা।

স্বাস্থ্য খাতে চরম দুর্নীতি অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা বন্ধ, বিনা মূল্যে সকল নাগরিকের করোনা পরীক্ষা ও চিকিৎসা প্রদান, রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকল বন্ধের চক্রান্ত বাতিল ও বছরে যতবার খুশি জ্বালানীর দাম বৃদ্ধির জন্য সংসদে উত্থাপিত বিল প্রত্যাহারের দাবীতে ২ জুলাই সারাদেশে রাজপথ অবরোধ কর্মসূচি সফল করতে শ্রমিকনেতা আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ কর্মী সভাতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোক্তার হোসেন, খোকন রাজ, শফিকুল ইসলাম বাবর প্রমূখ।

এলএন/এইচএস/০৭০১-০৭

0