হাজিগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধার সম্পত্তি দখলের অভিযোগ

0

হাজিগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা মো. বাবুল মিয়ার সম্পত্তি দখলের অভিযোগে উঠেছে তারই বড় ভাইয়ের সন্তান ও জামাতার বিরুদ্ধে। এছাড়াও পাওনা সম্পত্তি দাবী করায় বৃদ্ধ মুক্তিযোদ্ধাকে নানাভাবে হুমকী দিচ্ছে মৃত- মো. বাদশা মিয়ার ছেলে মো. শামীম, মো. আল আমিন, মো. জাবেদ ও তার মেয়ের জামাই মো. শাহজাহান। এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী মুক্তিযোদ্ধা মো. বাবুল মিয়া।

অভিযোগে জানা গেছে, মুক্তিযোদ্ধা বাবুল মিয়ার পিতা-মৃত মোহাম্মদ আলী, সেই ওয়ারিশ সূত্রে সম্পত্তি পাওনা থাকলেও বর্তমানে তা জোরপূর্বক দখল করে রেখেছে। এ নিয়ে সমাধানের আশ্বাসে পারিবারিক ও সামাজিকভাবে বসলেও ভাতিজারা এবং জামাতা শাহজাহান স্থানীয় প্রভাব খাটিয়ে উল্টো হুমকী দিচ্ছে।

এছাড়াও ৪২নং নিউ হাজীগঞ্জ এলকায় বৃদ্ধ মুক্তিযোদ্ধার পৈত্রিক সম্পত্তি দখল করিয়া ৪তলা ভবন করে দীর্ঘ দিন যাবৎ বসবাস করছে অভিযুক্তরা। বারবার মুক্তিযোদ্ধার অংশ বুঝিযে দিতে বললে অন্যত্রে চলে যাওয়ার জন্য উল্টো চাপ দিচ্ছে। এমতাবস্থায় বৃদ্ধ মুক্তিযোদ্ধার দাবী, তার ভাতা পাওয়া ছাড়া অন্যকোন আয় না থাকায় তিনি অসহায় হয়ে পড়েছেন। শুধুমাত্র পৈত্রিক সম্পত্তিতে বসবাস করিয়া শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করার জন্য আকুতি করে সকলের সহযোগীতা চেয়েছেন।

জানা গেছে, উল্লেখিত জমি হাজীগঞ্জ মৌজায় সি.এস খতিয়ান নং ১৪, এস.এ ১২নং, আর.এস ১৭১নং। বর্তমানে উল্লেখিত দাগ নং ভূমিতে ৪ তলা বিশিষ্ট ভবন নির্মিত করা হয়েছে ।

ত‌বে, অভিযোগের সত্যতা অস্বীকার করে বাদশা মিয়ার ছেলে শামীম জানান, আমার চাচা যে অভিযোগ করেছে তা মিথ্যা। যদি আমাদের কাছে জায়গা পায় তাহলে জায়গা দিবো।

এ বিষয়ে তদন্তে দায়িত্বপ্রাপ্ত ফতুল্লা থানা পুলিশের এসআই মোস্তফা কামাল জানান, যেহেতু জমি সংক্রান্ত বিষয় আমরা আইন অনুযায়ী যতটুকু পারি ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

0