হালিম আজাদের বক্তব্য পুলিশ খতিয়ে দেখছে

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ঈদের পর থেকে নারায়ণগঞ্জে রাজনৈতিক পরিস্থিতি বেশ উষ্ণ হয়ে উঠেছে। সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দেন নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি হালিম আজাদ। তার দেওয়া বক্তৃতায় জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ, কৃষক লীগ, জেলা ছাত্রলীগ, মহানগর ছাত্রলীগের তৃণমূল নেতৃবৃন্দ বেশ ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন। এমনকি এ বক্তৃতার প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর বৃন্দ।

অভিযোগ উঠেছে, হালিম আজাদ তার বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী, জয়-বাংলা এবং সংসদ নিয়ে কটুক্তি করেছেন। সেই সাথে তদন্তচলাকালীন এক মামলায় আসামী হিসেবে নাম উল্লেখ না থাকলেও সাংসদ শামীম ওসমান ও তার পরিবারের কয়েক সদস্যের শাস্তির দাবি করেন। এই বক্তৃতায় জেলার আম-জনতাসহ ওসমান অনুসারীরা নিন্দা জানিয়েছেন এবং তাকে দ্রুত গ্রেফতারারের দাবিও জানিয়েছেন।

দেশের উন্নয়নে অনবরত পরিশ্রম করে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী। যার কারণে বাংলাদেশ সারা বিশ্বের কাছে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে খ্যাতি পেয়েছে। আবার, সারা বাঙালির জয়ের হুংকার-‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’। যে ডাকে সাড়া দিয়ে দুর্জয়কে জয় করতে একতাবদ্ধ হয় পুরো বাঙালি জাতি। প্রধানমন্ত্রী ও ‘জয় বাংলা’ ধ্বনিকে নিয়ে যখন কটুক্তি করা হয় তখন একজন দেশপ্রেমিক তা মেনে নিতে পারে না।

হালিম আজাদের বিরুদ্ধে পুলিশ প্রশাসনকে দ্রুত আইনী ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন আওয়ামীলীগের তৃণমূল নেতা, জনপ্রতিনিধিরাসহ আম-জনতা।নারায়ণগঞ্জে পুলিশের বিভিন্ন কার্যক্রমে বেশ প্রশংসার দাবিদার পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ। তাইতো নারায়ণগঞ্জে সবচেয়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন তিনি। জনসাধারণের জীবন ধারণ সহজ করতে নানা পদক্ষেপ নিয়ে থাকেন এই পুলিশ সুপার। তার নির্দেশনায় নারায়ণগঞ্জে পুলিশ প্রশাসন নিরাপত্তা ব্যবস্থা বেশ দৃঢ় করেছে। অতীতে ভুল বক্তব্যের জন্যে পুলিশ প্রশাসনকে জিডি করতে দেখা গেছে। তেমনিভাবে সাম্প্রতিক এক অনুষ্ঠানে হালিম আজাদের দেওয়া ভুল বক্তব্যে পুলিশ ব্যবস্থা নিবে বলে প্রত্যাশা করছে রাজনীতিবিদরা।

এব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের মিডিয়া উইং ও বিশেষ শাখার পরিদর্শক (ডিআইটু) সাজ্জাদ রোমনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, দেশের প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কেউই কটুক্তি করতে পারে না। অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

৫৫৪
0