১৮ বছরেই মোটর সাইকেল চুরি চক্রের সক্রিয় সদস্য

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: মো. মিজানুর রহমান। বসয় মাত্র ১৮। অথচ, এরই মধ্যে জড়িয়ে গেছেন মোটর সাইকেল চুরির চক্রের সাথে। জেলা গোয়েন্দা পুলিশ বলছেন, ‘ চুরির পর স্বল্প সময়ের মধ্যেই গাড়ির চেসিস, ইঞ্চিন, প্লেট ও বডির আকৃতি পরিবর্তন করে বিক্রি করেদেন এ চক্রটি।’
তাই মিজানুর রহমান ধরে সোমবার (৭ অক্টোবর) সকালে ৫ দিনের রিমান্ডে চেয়ে আদালতে উঠায় পুলিশ। পরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. কাউসার আলম এর আদালত ১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
রিমান্ডপ্রাপ্ত মিজানুর রহমান ফতুল্লা থানার ছোট মধ্যনগর এলাকার মো. মনির হোসেন এর ছেলে।
এ ঘটনায় একটি মামলাও হয়েছে। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৩০ জানুয়ারি মো. ফারহাদ হোসেন এর ভাড়া বাসার কেচি গেইটের তালা কেটে মোটর সাইকেল চুরি করে নিয়ে যায় অজ্ঞাতনামা চোরেরা। পরবর্তীতে মো. ফারহাদ হোসেন বাদী হয়ে একটি চুরি মামলা দায়েল করেন। মামলা নং ১(২)১৯।
পরে পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে বেড়িয়ে আসে মো. মিজানুর রহমানের নাম। আদালতকে পুলিশ জানান, আসামি একজন সংঘবদ্ধ মোটর সাইকেল চোর চক্রের সক্রীয় সদস্য। সে ও তার সহযোগীরা নারায়ণগঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকায় থেকে মোটর সাইকেল চুরি করে স্বল্প সময়ের মধ্যে মোটর সাইকেল এর চেসিস নাম্বার, ইঞ্চিন নাম্বার ঘষামাজা করে প্লেট ও বডির আকৃতি পরিবর্তন করে বিভিন্ন লোকের কাছে বিক্রি করে।
প্রাথমিক তদন্তে আরও জানা যায় যে, মোটর সাইকেল চুরির ঘটনার দিন ঘটনাস্থলের আশে-পাশে সন্দেহজনক ভাবে ঘোরাফেরা করতে দেখা গেছে। সে মামলার চুরির ঘটনার সাথে জড়িত মর্মে জোর সন্ধেহ করা হচ্ছে। আসামীকে গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে বিধায় মামলার আরও তথ্য সংগ্রহের জন্য রিমান্ড প্রয়োজন।
এবিষয়ে কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক মো. আব্দুল হাই বলেন, আসামি মো. ফারহাদ হোসেন চুরি মামলার সাথে জড়িত। তাই মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে আসামিকে ১ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

0