২ দিনে না.গঞ্জে থেকে হেফাজতের ২৮ কর্মী গ্রেপ্তার

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: রিসোর্টে কথিত দ্বিতীয় স্ত্রীসহ হেফাজতে ইসলামের নেতা মামুনুল হককে অবরুদ্ধের জেরে ও হেফাজতের ডাকা হরতালের দিন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সহিংসতার ঘটনায় গত ২দিনে ২৮ জন কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) রাত পৌনে ১১টায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

তিনি বলেন, সন্ধ্যায় সোনারগাঁওয়ে একটি মাদ্রাসায় গোপনে বৈঠক করার সময় হেফাজতের ৭জন। পরে আরও ১ জন। এর আগে সিদ্ধিরগঞ্জ ও সোনারগাঁয়ে ৫জনসহ এখন পর্যন্ত মোট ২৮ জন কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতদের সোনারগাঁও থানা পুলিশের দায়ের করা দুইটি মামলা ও স্থানীয় সাংবাদিক হাবিবুর রহমানের ওপর হামলার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। এ ছাড়া গত মঙ্গলবার, বুধবার উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় সনমান্দি ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকার মোস্তফা, বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের পঞ্চবটি গ্রামের রাজু, আবু রায়হান ও ইমরান, সোনারগাঁও পৌরসভার খাসনগর দিঘিরপাড় গ্রামের আকাশ নামে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গত ৩ এপ্রিল হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব আল্লামা মামুনুল হককে সোনারগাঁও রয়েল রির্সোটে নারীসহ আটক করেন স্থানীয় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে বিক্ষুদ্ধ হেফাজতের নেতাকর্মীরা ওই রিসোর্টসহ আওয়ামী লীগ কার্যালয়, যুবলীগ-ছাত্রলীগের বাড়ি-ঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ভাঙচুর চালান। এ ছাড়া স্থানীয় এক সাংবাদিককে মারধর করেন।

এ ঘটনায় সোনারগাঁও থানা পুলিশের দুইজন উপপরিদর্শক (এসআই) ৮৩ জনের নাম উল্লেখ করে আরও ৫-৬শ অজ্ঞাতনামা আসামি করে থানায় দুইটি মামলা দায়ের করেন। এ ছাড়া আহত ওই সাংবাদিক ১৭ জন জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও শতাধিক আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

এছাড়া সিদ্ধিরগঞ্জ থানাতেও হেফাজতের বিরুদ্ধে ৬ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

0