৩০ জুলাই ভারতীয় দূতাবাস অভিমূখে গণমিছিল

0

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় সহ প্রচার সম্পাদক মুফতি দেলাওয়ার হোসাইন সাকী বলেছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে গ্যাসের মূল্য যখন নিম্নমুখী, পার্শ্ববর্তী দেশে যখন গ্যাসের দাম কমানো হলো, তখন বাংলাদেশে গ্যাসের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তে সরকারের গণবিরোধী চরিত্রই প্রকাশ পেয়েছে তা নয়, বরং সরকারের রক্তচোষা চেহারাও উম্মোচিত হয়েছে।
তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে শুধু গ্যাসের মূল্য বাড়েনি, খুন, গুম, ধর্ষণ, রাহাজানি, চুরি, দুর্নীতি সবই বৃদ্ধি পেয়েছে। এই সরকারের আমলে কৃষকরা ধানের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না। অপরদিকে কৃষি পণ্যের দাম অনেক বেশি। রোগীরা সেবা পাচ্ছে না, ছাত্ররা তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত, সাধারণ মানুষ হয়রানীর শিকার হচ্ছে।
আজ শনিবার বিকাল ৫টায় ডি.আই.টি চত্বরে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে ভারতে মুসলিম গণহত্যা, দেশব্যাপী ভয়াবহ খুন, গুম, ধর্ষণ সহ আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি ও অযৌক্তিকভাবে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগরের উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিলের সভাপতিত্ব করেন নগর সভাপতি মুফতি মাসুম বিল্লাহ, প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা সভাপতি আলহাজ¦ আনোয়ার হোসেন জিহাদী, উপস্থিত ছিলেন নগর ও জেলা সেক্রেটারি যথাক্রমে মুহা. সুলতান মাহমুদ ও মাও. শাহআলম কাঁচপুরী, নগর সহ-সভাপতি মুহা. নূর হোসেন, মুহা. শাহাদাত হোসেন, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক, আলহাজ¦ আমিন উদ্দিন, মাও. শামসুল আলম, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন জেলা ও মহানগরের সভাপতি যথাক্রমে মোঃ ওমর ফারুক ও আলহাজ¦ হাসান আলী, যুব আন্দোলন নগর সভাপতি গিয়াসুদ্দীন মুহাম্মাদ খালিদ, জেলা সভাপতি মুহা. শফিকুল ইসলাম, ইশা ছাত্র আন্দোলন এর জেলা সভাপতি মুহা. শিব্বির আহমাদ, নগর সভাপতি মুহা. ইমদাদুল হক সহ জেলা ও থানার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
তিনি আরও বলেন, ভারত আন্তর্জাতিক আইন এবং সভ্যতা-ভদ্রতার সকল সীমা অতিক্রম করে মুসলিম নির্যাতন করে যাচ্ছে। হিন্দুত্ববাদী জঙ্গি সন্ত্রাসীরা মুসলমানদের ওপর নির্যাতন করে হত্যা করছে। এবং বলপ্রয়োগ করে জয় শ্রীরাম বলাচ্ছে। মদি সরকার যদি এহেন মুসলিম নির্যাতন বন্ধ না করে তবে পীর সাহেব চরমোনাই’র নেতৃত্বে আগামী ৩০ জুলাই ভারতীয় দূতাবাস অভিমুখে গণমিছিল ও স্মারকলিপি পেশ করা হবে, ইনশাআল্লাহ।
সভাপতির বক্তব্যে মুফতি মাসুম বিল্লাহ বলেন, তিতাসে প্রতি মাসে সাড়ে ১২ শতাংশ গ্যাস চুরি হয়। এই চুরি ও দুর্নীতি বন্ধ না করে সরকার এর দায় জনগণের উপর চাপিয়ে দিচ্ছে। সরকার দেশের পুরো অর্থনীতিকেই যেন গিলে খেতে চাচ্ছে।

১০৮
0