৬ মাসের গর্ভের বাচ্চা হত্যা মামলায় মহিলাসহ গ্রেপ্তার ৩, পলাতক ২

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বন্দরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অন্তঃসত্তা গৃহবধূ মাহমুদা বেগম (৪৫) এর ৬ মাসের গর্ভের বাচ্চা হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। বুধবার (১৩ অক্টোবর) সকালে ভুক্তভোগী গৃহবধূর স্বামী হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে মহিলাসহ ৫ জনের নাম উল্লেখ্য করে বন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ১৬(১০)২১।


মামলা দায়েরের পর মদনগঞ্জ ফাঁড়ী উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোশারফ হোসেনসহ সঙ্গীয় র্ফোস মদনগঞ্জ ইসলামপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে মহিলাসহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো বন্দর থানার ১৯ নং ওযার্ডের মদনগঞ্জ ইসলামপুর এলাকার হযরত আলী মিয়ার ছেলে হাসান (২৬) ও তার স্ত্রী আইরিন (২২) ও ছোট ভাই হোসেন (২৪)। পলাতক আসামীরা হলো একই এলাকার মৃত খাদেম আরি মিযার ছেলে হযরত আলী (৫২) ও একই এলাকার মৃত গিয়াস উদ্দিন মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর (৫২)।

জানা গেছে, বন্দর থানার মদনগঞ্জ ইসলামপুর এলাকার মৃত আলী আকবর মিয়ার ছেলে হাবিবুর রহমানদের সাথে একই এলাকার প্রতিপক্ষ হযরত আলী ও তার দুই ছেলে হাসান ও হোসেন গংদের সাথে র্দীঘ দিন ধরে জায়গা সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৩০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় মুরগী পালতে দেওয়াকে কেন্দ্র করে হযরত আলী ও তার দুই ছেলে হাসান ও হোসেন পুত্রবধূর আইরিন বেগম ও জাহাঙ্গীর গং বাদী দুই মেয়ে শাহিনূর ও তামান্নাকে বেদম মারধর করে। আহতদের চিৎকারের শব্দ পেয়ে গর্ভবতী মাহমুদা বেগম তার দুই মেয়েকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে ওই সময় হাসান মিয়ার স্ত্রী আইরিন বেগম ক্ষিপ্ত হয়ে ইট দিয়ে পেটে ঢিল মারলে ঘটনাস্থলেই গর্ভবতী মাহামুদা বেগমের প্রচুর রক্তক্ষরন হয়। স্থানীয় এলাকাবাসী দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে আহতকে রক্তক্ষরন অবস্থায় উদ্ধার করে বন্দর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করা হয়। পরে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদানের পর গত ৫ অক্টোবর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত বাচ্চা প্রসব করে।

বন্দর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা দায়েরের সাথে সাথে মদনগঞ্জ ফাঁড়ী পুলিশ মামলার এজাহারভূক্ত মহিলাসহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করেছে।

0