৯ দফা দাবিতে শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদের সমাবেশ

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল রাষ্ট্রীয় পরিচালনায় চালু, আইন করে ন্যূনতম জাতীয় মজুরি ঘোষণা, আইএলও কনভেনশন অনুযায়ী গণতান্ত্রিক শ্রম আইন প্রণয়ন, করোনাকালে শ্রমিকের চাকরি ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করাসহ ৯ দফা দাবিতে শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদের সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৫ নভেম্বর (বুধবার) বিকাল ৩ টায় শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদ (স্কপ) নারায়ণগঞ্জ জেলার উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে এ সমাবেশ ও শহরে মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে উপস্থিত নেতৃবৃন্দরা বলেন, মাত্র ১২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে পাটকলগুলিকে আধুনিকায়ন করার পরিবর্তে লোকসানের অভিযোগ তুলে আমলাতন্ত্রের দুর্নীতির দায় শ্রমিকদের উপর চাপিয়ে রাষ্ট্রীয় পাটকলসমূহ বন্ধ করে রাষ্ট্রীয় সম্পদ ব্যাক্তি মালিকদের লুটপাটের সুযোগ করে দেয়া হচ্ছে। একইভাবে চিনিকলসমূহ বন্ধ করার প্রচেষ্টা চলছে।

তৎকালীন সরকারের বিরাষ্ট্রীয়করণ নীতির প্রতিরোধে শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদের জন্ম একথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জন থেকে আজকের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি শ্রমিকদের শ্রম-রক্ত-ঘামের বিনিময়ে অর্জিত। শ্রমিকদের সৃষ্টি সম্পদ তাদের বি ত করে শিল্প মালিকদের হাত তুলে দেওয়ার প্রচেষ্টা স্কপ মেনে নেবেনা।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম আকাশচুম্বি। কিন্তু শ্রমিকের মজুরি বাড়ছে না। আমাদের দেশে অল্প কিছু সেক্টরে মজুরি বোর্ড এবং নিম্নতম মজুরি আছে। বেশিরভাগ সেক্টরে নিম্নতম মজুরি নেই। যেখানে আছে সেখানে বর্তমান বাজার দরের সাথে সঙ্গতিবিধানের কোন ব্যবস্থা নেই। দেশের সকল শ্রমজীবীদের জন্য আইন করে জাতীয় নিম্নতম মজুরি ঘোষণা করতে হবে এবং প্রতি বছর তা বাজারদরের সাথে সঙ্গতিবিধান করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ করোনাকালে শ্রমিকদের স্বাস্থ্য ও উপার্জনের সুরক্ষা নিশ্চিত করার দাবি জানিয়ে বলেন, শ্রমিকদের কল্যানের জন্য কাজ করা সরকারের কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তর এবং শ্রম পরিচালকের অধিদপ্তরের দায়িত্ব হলেও এই সকল অধিদপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা সম্পদ সৃষ্টিকারী শ্রমিকের স্বার্থ রক্ষার পরিবর্তে ব্যাক্তিগত সুবিধা নিয়ে মালিকদের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করে। নেতৃবৃন্দ, আই.এল.ও কনভেনশনের অনুসরণে শ্রম আইন ও বিধিমালার সংশোধন করার জোর দাবি জানিয়ে স্কপের ৯ দফা মেনে নেওয়ার আহবান জানান।

এর পর সবাই জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুল হক মন্টু ও জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সফিউদ্দিন আহমেদ এর মৃত্যুতে সকলে দাঁড়িয়ে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আব্দুল হাই শরীফের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় নেতা এডভোকেট মন্টু ঘোষ, জাতীয় শ্রমিক লীগ নারায়ণগঞ্জ জেলার সহ-সভাপতি মোখলেছুর রহমান, জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি হাফিজুর রহমান, জাতীয় শ্রমিক জোট বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি মোঃ সৈয়দ হোসেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিক কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক হাফিজুল ইসলাম, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট জেলার সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদ, টিইউসির সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দাস।

0