আ.লীগ কার্যালয়ে হামলার ঘটনায় ছাত্রদল নেতা শহিদুল গ্রেপ্তার

সোনারগাঁ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর আষারিয়ার চর এলাকায় আওয়ামীলীগ কার্য্যালয়ে হামলা ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাংচুরের ঘটনায় থানা ছাত্রদল নেতা শহিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছেন সোনারগাঁ থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকালে কোবাগা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়। আদালত তাকে জেলহাতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। শহিদুলের গ্রেফতারের খবরে এলাকায় মিষ্টি বিতরণ করেছেন স্থানীয়রা। স্থানীয়রা তার দৃষ্টান্তমূলক বিচার চেয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের কোবাগা গ্রামের বাসিন্দা আবুল কাসেমের ছেলে শহিদুল ইসলাম, বিএনপি জামায়াত জোট সরকারের আমলে ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে সক্রিয় ছিলেন। এলাকায় জমি দখল, অস্ত্র, মাদক ব্যবসা, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি করে এলাকায় প্রভাব বিস্তার করে দিনের পর দিন বেপরোয়া হয়ে উঠে। এলাকাবাসীরা তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হলেও তার ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পায় না। কারণ তার রয়েছে একটি সন্ত্রাসী বাহিনী।এই সন্ত্রাসী বাহিনী এলাকায় প্রকাশ্যে বিভিন্ন অপকর্ম চালালেও কেউ প্রতিবাদ করতে পারছেন না। এ বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসনের কাছে বারবার লিখিত অভিযোগ করেও কোন ফল পাচ্ছেন না তারা।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে শহিদুল ইসলামকে মোবাইল ফোনে পাওয়া যায়নি।

সোনারগাঁ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুব হোসেন জানান, আওয়ামী লীগের কার্য্যালয় ভাঙ্গচুর ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙ্গচুরের মামলায় ছাত্রদল নেতা শহিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার কাছ থেকে প্রকৃত ঘটনার জানান জন্য রিমান্ডের জন্য আবেদন করা হবে।

র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লে:কর্নেল তানভির মাহমুদ পাশা জানান, বিএনপি জামায়াতের অন্তরালে কেউ যদি কোন ধরণের নাশকতার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে শহিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার সাথে আরো কারা কারা রয়েছে তা নিশ্চিত করে তাদেরকে গ্রেফতার করা হবে।