উন্নয়নের মার্কাই হলো শামীম ওসমান: নাজিম উদ্দিন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: এখন আমরা অভিযোগ করি, পানির নিচে পড়ে আছি। অথচ, বাড়ি করার সময় এই আমরাই উচুঁ করি নি। এখন সেই দোষটা যদি মেম্বার, চেয়ারম্যান কিংবা জনপ্রতিনিধিদের উপরে ফেলি কি হবে। তারপরেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শামীম ওসমানের আবেদনের প্রেক্ষিতে শত শত কোটি টাকা দিয়েছেন।

ডিএনডির পানি নিস্কাশন ব্যবস্থা নিয়ে ভূইগড় জনকল্যাণ মাঠে কথা গুলো বলছিলেন মো. নাজিম উদ্দিন।

তাঁর মতে, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে যত টাকার উন্নয়ন হয়েছে। এত টাকার উন্নয়ন জেলার অন্যকোন আসনে হয়নি। আর এই উন্নয়ন হয়েছে শামীম ওসমানের হাত দিয়েই। বাস্তবায়ন করছেন চেয়ারম্যান মেম্বাররা।


নাজিম উদ্দিন আহমেদ বলেন, চেয়ে ছিলাম রাজনীতির সাথে সর্ম্পক্ত হবো না। তাই অনেকে মন খারাপ করে, ফলে আমি আবারও একটু নামবো। উন্নয়নের রূপকার শামীম ওসমানের জন্য হলেও নামতে হবে। তার মাধ্যমে কুতুবপুর ইউনিয়নের যতটুকু উন্নয়ন করে যেতে পারি, সেটাই হবে সাদকায়ে জারিয়া। তবে, কোন রাজনৈতিক দল নিয়ে নয়, আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয়পাটি, জাসদ-বাসদ (জামায়েত ব্যতিত্ব)সহ জনসাধারণ সকলেই থাকবে। তাদের সমন্বয় করে একটি ঐক্য পরিষদ গড়ে তোলবো। আমি এলাকার জন্য যদি ৫ হাজার টাকাও ব্যয় করি, তাহলে সেই কমিটির মাধ্যমেই ব্যয় করবো।

নাজিম উদ্দিন আহমেদ বলেন, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে আমার কাছে উন্নয়নের মার্কাই হলো শামীম ওসমান।

নাজিম উদ্দিন আহমেদ বলেন, রিসেন্টলি একটা আইসিটি পার্কের উদ্বোধন করলো সে, শেখ রেহানা মেডিকেল কলেজ হচ্ছে। ডিএনডির প্রজেক্টের কাজ চলছে। লিংক রোড প্রশস্ত হচ্ছে। সবই হবে।

এ সময় ভূইগড় জনকল্যাণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পানিতে ডুবে থাকা মাঠ উন্নয়নের ঘোষণা দেন।

এ সময় ভূইগড় জনকল্যাণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, অভিভাবক প্রতিনিধি, স্থানীয় পঞ্চায়েত কমিটিসহ আরো অনেকে।