এমপি খোকাকে দিপু ‘বাঘে ধরলে ছাড়ে, কিন্তু হাসিনা ধরলে ছাড়বে না’

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ‘আওয়ামী লীগ একটি অনুভূতির নাম। আর নারায়ণগঞ্জে সেই অনুভূতির চিন্তা হচ্ছে আনোয়ার হোসেন। আপনি আনোয়ার হোসেনকে আঘাত করেন নাই? আপনি আঘাত করেছেন নারায়ণগঞ্জের লাখো আওয়ামী লীগের কর্মীদের অনুভূতিতে। আপনাকে আমি ধিক্কার জানাই।’

নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের দু’বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও জাতীয়পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা লিয়াকত হোসেন খোকার উদ্দেশ্যে শনিবার (২১ নভেম্বর) কথা গুলো বলেছেন আওয়ামী লীগ জাতীয় পরিষদের সদস্য এড. আনিসুর রহমান দিপু।

তাঁর ভাষ্য, ‘আমরা ১৯৯০ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সৈরাচারের পতন ঘটিয়েছি। আপনি শেখ হাসিনার আশ্রয়ে এমপি হয়ে শেখ হাসিনার পরীক্ষিত কর্মীকে অপমান করবেন। সেই আওয়ামী লীগ মুখবুঝে সহ্য করবে না। কথায় আছে `বাঘে ধরলে ছাড়ে, কিন্তু হাসিনা ধরলে ছাড়বে না’।

জেলা প্রশাসনের উন্নয়ন প্রকল্পের নামফলক থেকে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেনের নামের অংশ ভেঙ্গে ফেলার অভিযোগে গত কয়েক দিনের ধারাবাহীকতায় আজও এই আইনপ্রণেতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও সভার আয়োজন করে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগ।

ওই সভায় আনিসুর রহমান দিপু আরও বলেন, ‘আনোয়ার হোসেন ব্যক্তিগত কাজ করেনি। সে সরকারি কাজ করছিল। শেখ হাসিনার উন্নয়ন কাজ করছিল। রাষ্ট্রীয় কাজে বাঁধা দন্ডনীয় অপরাধ। আপনি তো বিরোধী দলীয় এমপি, সরকারি দলের এমপিদের দিকে নজর দেন। শেখ হাসিনার বাংলাদেশ সন্ত্রাসী কর্মকান্ড যে করবে, তার বিরুদ্ধে অ্যাকশন নেয়া হবে। এখনও সময় আছে অবিলম্বে নিঃশর্ত ক্ষমা চান। না হলে আওয়ামীলীগে আজ যে আন্দোলন শুরু হয়েছে, লাগাতার চলবে। যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতির জন্য আপনি খোকা সাহেব দায়ী থাকবেন।’

এ সময় সভা ও বিক্ষোভ মিছিল থেকে সোনারগাঁয়ের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকাকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে এই এমপিকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী জানান।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. খোকন সাহা, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আরজু রহমান ভূইয়া, যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জিএম আরমান, আহসান হাবীব, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. মাহমুদা মালা, জিএম আরাফাত, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. আতিকুজ্জামান সোহেল, নাসিকের ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কবির হোসাইন, সাবেক কাউন্সিলর মো. মনিরুজ্জামান প্রমুখ।

0