কাউন্সিলর বাবুলের কোন চাহিদা ছিল না: মেয়র আইভী

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, আমরা একজন কাউন্সিলরকে হারিয়ে শোকাহত। কাউন্সিলর বাবুলের জনপ্রিয়তা তার জানাজাতে প্রমাণিত হয়েছে। ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে একটি মসজিদের কাজের সাথে জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত নিয়োজিত ছিলেন। ঈদের কিছুদিন আগে যখন আমি তাঁর স্ত্রী সন্তানদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলাম তখন তাঁর ভাইয়েরা আমাকে মসজিদটি দেখায়। অত্যন্ত রুচিশীলভাবে গ্রামের মানুষের সঙ্গে কথা বলে কাজটি করেছেন।


মঙ্গলবার (১৫ জুন) বেলা ১১টায় আলী আহাম্মদ চুনকা নগর পাঠাগার ও মিলনায়তনে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মাসিক সভায় প্রয়াত কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বাবুল প্রসঙ্গে তিনি এসব কথা বলেন।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিও) আবুল আমিনের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন প্যানেল মেয়র-১ আফসানা আফরোজ বিভা, প্যানেল মেয়র-২ মতিউর রহমান মতি, প্যানেল মেয়র-৩ মিনোয়ারা বেগম, ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাস, ১২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু, ১৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কবির হোসাইন, ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিউদ্দিন প্রধানসহ অন্যান্য কাউন্সিলররা।

মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, প্রথম দিকে কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বাবুল এসে আমাকে বলতেন, উনি বিএনপি করে তাই ওনাকে কাজ-কাম কম দেই। পরে ওনার ধারণা বদলে যায়। প্রথমে আমাদের হাতে তেমন কাজ ছিল না। পরবর্তীতে ওনার ওখানে অনেক কাজ হয়েছে। ছোট কয়েকটা গলি, ব্রিজের কাজ চলমান ছিল। তাছাড়া ওনার কোন চাহিদা ছিল না। কবরস্থানের জন্য ওনি প্রায় আমাকে বলতো কিন্তু সেই কাজটাও তিনি উদ্বোধন করে গেছেন। বাবুল মানুষ হিসেবে ভালো ছিলেন। এলাকার মানুষের সঙ্গে তাঁর আচার ব্যবহার ভালো ছিল। আমি দেখলাম দলমত নির্বিশেষে এলাকার মানুষ এসে আমাকে ওনার সম্পর্কে বলেছে।

0