কাজ না করে সকাল সন্ধ্যা নামাজ পরে লাভ নেই: মেয়র আইভী

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আজকে এখানে যে কাজটা করতে আস‌ছি, সেটা আমার দায়িত্বের মধ্যে পরে। এই কাজটি আমাদের আগেই করা উচিত ছিলো কিন্তু, আমরা একটি নতুন সিটি কর্পোরেশন তৈরি করায় এবং টাকার স্বল্পতা থাকায় তা করতে পারি নাই। আমাদের এখানে ৭টি বিল্ডিং হওয়ার কথা এর মধ্যে ৫টির কাজ চলমান ও আরও ২টি হবে। এখানে মোট ১৮০টি ফ্ল্যাট হবে। এই প্রজেক্ট এর জন্য কারো প্রতি যদি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে হয়, সেটা হলো আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (১৬ জুন) সকালে নগরীর টানবাজারস্থ হরিজন সম্প্রদায়ের জন্য সেবক কলোনীর ভিত্তিপ্রস্থত স্থাপন করার পর নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী এসব কথা বলেন।

মেয়র আইভী বলেন, আমি একটা কথা বলবো, আমি মানব ধর্মে বিশ্বাসি। এখানে যারা ধর্মিও গুরুরা রয়েছেন তাদের কাছে আমার একটি অনুরোধ আপনাদের ভক্ত যারা রয়েছে তাদের একটি কথা শিখাবেন যে, আমাদের কাজেই হলো ভক্তি। কাজের মাধ্যমেই ইশ্বরকে খুজে পাওয়া যায়। আমি যদি মানুষের জন্য কাজ না করে সকাল সন্ধ্যা যতই নামাজ পরি তা কিন্তু আমার কাজে লাগবে না। আল্লাহ বলেছেন যেখানে অভাব, যেখানে নিপিড়ন আমি সেখানে। সুতরাং মানুষের সেবা করার উপরে কিছু নাই। যে কাজকে ফাকি দেয় তার সাথে কেউ থাকে না। আপনারা আপানদের শিশুদের স্কুলে পাঠান। আমি এখানে কথা দিয়ে যাচ্ছি যারা লেখাপড়া করে ডিগ্রি অর্যন করেছে তাদের আমি বিশেষ কোঠায় চাকরি দেয়ার ব্যবস্থা করবো।

তিনি বলেন, আমি যখন প্রথমবার এনসিসির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হউ তখন আমি আপনাদের ডেকে নিয়ে কথা বলতাম। আপনাদের সাথে একসাথে বসে চা খেতাম, মনে আছে সে কথা। আমার বাবার পর আমি যতবার এখানে এসেছি ততবার মনে হয়না কোন নেতা এতবার এসেছে। আমি সবসময় চেষ্টা করেছি আপনাদের কি কি কাজ সেটা করার জন্য। কিভাবে আপনাদের ভালো করা যায় আমি সেই চিন্তাই করবো। বাচ্চাদের জন্য এখানে একটি স্কুল থাকবে, মন্দির থাকবে একটা খেলার মাঠ থাকবে। আপনাদের কাছে আমাদের একটা অনুরোধ যে আশে পাশের মানুষদের আপনারা কোন ডিষ্টার্ব করবেন না। কেউ যাতে বলতে না পারে আপনারা ওনাদের ডিষ্টার্ব করেছেন।

 

তিনি আরও বলেন, আমার অনেক খারাপ লাগে যখন কেউ বলে আপনার হরিজন সম্প্রদায়ের লোকরা মাদক বিক্রি করে। আমি এখানের মা বোনদের বলবো আপনারা এসকল কাজ করবেন না। কেউ যদি মাদক বিক্রি করার চেষ্টা করে তাহলে তাকে এই কলোনী থেকে বের করে দিবেন। এখানে যে দুইজন কাউন্সিলর আছে তারা সবসময় কিন্তু আপনাদের পাশেই থাকে। করোনার শুরুতে যখন প্রধানমন্ত্রী আপনাদের জন্য চালডাল পাঠিয়েছে সেটি প্রধম আপনাদের দেয়া হয়। আমি অশিতকে বলেছি যে, এই ত্রান আমি আমার সেবক কলোনির লোকজনদের প্রথমে দিতে চাই। পাশাপাশি যখন আপনারা যা চান তাই আমি আপনাদের দেয়ার চেষ্টা করি।

এ সময় হরিজন সমাজ সেবা সংঘের সাধারণ সম্পাদক মামুন চন্দ্র দাস এর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন- নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ আফসানা আফরোস বিভা, এনসিসি ১৩, ১৪, ১৫ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর শারমিন হাবিব বিন্নি, এনসিসি ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আশিত বরণ বিশ্বাস, নারী সংহতি নারায়ণগঞ্জ জেলার সম্পাদক পপি রানী সরকারসহ অনেকে।

0