কেন্দ্রে ভোটারের চেয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বেশি দেখা যাবে: এসপি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: এই নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পর্যাপ্ত থাকবে। একটি প্রতিষ্ঠানে কমপক্ষে ৪-৫টি টিম থাকবে। আর একটি টিমে কমপক্ষে ৪-৫টি পুলিশ সদস্য ও ২০-২২ জন আনসার থাকবে। তাহলে আপনারা বুঝতে পারছেন একটি প্রতিষ্ঠানে ২৫-৩০ জন পুলিশ ও একশত’র উপরে আনসার সদস্য থাকবে। এটা তো ছিলো শুধু ভোট কেন্দ্রের ভিতরে। এছাড়া প্রতিটি ওয়ার্ডে আমার তিনটি করে টিম ফোর্স থাকবে। একটি বিজিবির টিম থাকবে, একটি র‌্যবের টিম থাকবে ও আর একটি পুলিশের টিম থাকবে। ভোটের একসময় দেখবেন কেন্দ্রে ভোটরের চেয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বেশি দেখা যাবে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) সকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদার সাথে এনসিসি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনাকালে এসব কথা জানান নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম। নগরীর মর্গান গার্লস স্কুলের সম্মেলন কক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়।

পুলিশ সুপার বলেন, আমরা নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার স্যার এর নির্দেশনা পাচ্ছি, আমরা আসলেই ভাগ্যবান। আপনারা আপনাদের সমস্যার কথা জানিয়েছেন, আমরা সেগুলোকে অবশ্যই সমাধান করবো। আমরা আরেকটি কারনে ভাগ্যবান, সেটা হলো আমরা নারায়ণগঞ্জের মানুষের সেবা করতে পারছি। এই সিটি কর্পোরেশনে কমপক্ষে ৩০ থেকে ৩৫ লাখ মানুষের বসবাস। তবে এখানে ভোটর মাত্র পাঁচ লাখের একটু বেশি।

তিনি বলেন, আপনি কোন ভোট কেন্দ্র আছেন যেখানে ভোটার আছে ২ হাজার, সেখানে আপনাকে ধরে রাখতে হবে যে ভোট দেখতে আরও দশ হাজার মানুষ আপনার বোট কেন্দ্রে আসবে। আপনাকে মানসিক ভাবে সেই প্রস্ততি নিয়ে রাখতে হবে। এক্ষেত্রে আপনাদের নিরাপত্তার জন্য যা যা করার আমি সবই করবো। বিগত দিনে নারায়ণগঞ্জে যে ইউপি নির্বাচন গুলো হয়েছে সেখানে আপনারা দেখেছেন যে, আপনারা যতক্ষণ ভোট কেন্দ্র থেকে না এসেছেন আমরা কিন্তু ধুমাতে যাইনি। ভোটের দিন আপনারা হবেন আমাদের লিডার, বোট কেন্দ্রে আপনাদের নির্দেশ ছাড়া কোন কিছু হবে না। আপনাদের কথা যদি কেউ না শোনে তাহলে আপনাদের কথা কিভাবে মানাইতে হয় সেটা আপনারা যানেন।

তিনি আরও বলেন, ভোট কেন্দ্রের বাইরে কিভাবে পরিবেশ সুষ্ঠ রাখতে হয় সেটা আমরা করবো, আর ভোট কেন্দ্রর ভিতরে আপনারা যেভাবে বলবেন সেভাবে করা হবে। আপনাদের গায়ে একটা ফুলের টোকা পরুক সেটা আমরা চাইবো না, আমরা পরতে দিবো না। আপনাকে কেউ ফুলের টোকা দিতে চাইলে, তার বিরুদ্ধে আমরা কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার, জেলার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক সার্কেল) মো. নাজমুল হাসান প্রমুখ।