কোন কোন দল মুক্তিযোদ্ধাদের নিজেদের সম্পত্তি বানিয়ে নিয়েছে: ইকবাল হোসেন

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: যুদ্ধে হাত, পা হারিয়েছে- সেই লোক স্থান পায়নি মুক্তিযোদ্ধার তালিকায়। অনেকে আবার মুক্তিযোদ্ধের সময় ছোট কিংবা জন্মায় নি; তারাও আবার মুক্তিযোদ্ধা হয়ে গেছেন। কোন কোন দল মুক্তিযোদ্ধাদের নিজেদের সম্পত্তি বানিয়ে নিয়েছে। প্রশ্নবৃদ্ধ করা হচ্ছে মুক্তিযোদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাদের ভুমিকাকে!

আল-জয়নাল প্লাজার ৩য় তলায় সংবর্ধনা ও নারায়ণগঞ্জ জাতীয় পার্টির কার্যালয়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শনিবার (২১ নভেম্বর) এ কথা গুলো বলছিলেন জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ও যুগ্ম মহাসচিব মো. ইকবাল হোসেন তাপস।

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটিতে মো. জয়নাল আবেদীনকে উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল মোতালিবকে সহ-সভাপতি ও মো. গোলাম কাদিরকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত করায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

তাপসের ভাষ্য, ‘মুক্তিযুদ্ধ বা মুক্তিযোদ্ধা কোন ব্যক্তিগত সম্পদ হতে পারে না। দলের সম্পদ হতে পারে না। সকল মুক্তিযোদ্ধাদের জাত একটাই। সকল মুক্তিযোদ্ধাদের কর্ম একটাই।’

মো. ইকবাল হোসেন তাপস বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধের সময় আমি ছোট ছিলাম। তাই আমার জীবনের অপূর্ণতা, আমি মুক্তিযোদ্ধা হতে পারি নি। এই অপূর্ণতা জীবনে আর কখনও পূরণ হবে না। কিন্তু আমি মনে করি, সারা বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধাদের একটি প্রথা দেওয়া উচিৎ। সেটা হলো জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টি। কারণ মুক্তিযোদ্ধারা জাতীর সম্পদ, দেশের সম্পদ। কোন দলের সম্পদ হওয়া উচিত না।’

এ সময় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভাপতি ও জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির শিল্প বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইসহাক ভূঁইয়া।

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টি নির্বাহী কমিটির আহ্বায়ক ও কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল মোতালিবের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ মো. তাফাজ্জল হোসেন, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. মো. হানিফ মিয়া ও বীর মুক্তিযোদ্ধা এএইচএম সফিউল আলম আরিফ , জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সচিব কাজী দেলোয়ার হোসেন ও সদস্য মো. আব্দুল বাতেন।

অনুষ্ঠান শুরুতে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির উদ্যোগে প্রথমে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। পরে সকল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য দোয়া ও জাতীয় সঙ্গীত পরিচালনা, অতিথিদের ফুলের শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে।

0