‘চেষ্টা করছি জনগণের প্রথম ভরসার স্থল হতে’

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জঃ কেউ দিচ্ছিলেন মাদকের তথ্য, কেউ কিশোর অপরাধ আর জুয়াড়ির। কেউ আবার শৃঙ্খলা ফেরাতে দিচ্ছিলেন পরামর্শ। সেই তথ্যই পাশে বসে মন দিয়ে শুনছিলেন থানার অফিসার ইনচার্জ। লিখেও রাখছিলেন একজন।

‘পুলিশই হবে জনগণের প্রথম ভরসার স্থল’ স্লোগানকে সামনে রেখে বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিকালে বন্দর থানায় ওপেন হাউজ ডে’তে এই চিত্র দেখা যায়।

প্রতিমাসেই বন্দর থানায় এমন ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত হয়। থানা এলাকার শিক্ষক, শিক্ষার্থী, জনপ্রতিনিধিসহ নানা শ্রেণির মানুষ সেই অনুষ্ঠানে অংশ নেয়।

থানাটির অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহার সভাপতিত্বে বুধবারের অনুষ্ঠানও তাঁর ব্যতিক্রম হয়নি। সেখানে প্রধান অতিথি ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) মো. জাহেদ পারভেজ চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মাহিন ফরাজী।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর সুলতান আহমদ বলেন, ‘প্রতি মাসেই ওপেন হাউজ ডে হয়। নানা সমস্যা উঠে আসে। আবার সমাধানও হয়। যার ফলে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ও বিভিন্ন শিল্প কারখানা থাকার পরেও অপরাধ তুলনামূলক কম। এছাড়া বিগত দিনের পুলিশের সাথে বর্তমানের পুলিশের ব্যাপাক ফারাক রয়েছে।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) জাহেদ পারভেজ চৌধুরী বলেন, ‘সরকারের বহু সংস্থা রয়েছে। কিন্তু আমার জানা মতে, প্রতিমাসে শুধু পুলিশই এভাবে জনগণকে ডেকে এনে সমস্যা জানতে চায় এবং সমাধানের চেষ্টা করেন। করোনার সময় বিভিন্ন সংস্থার সরকারি কর্মকর্তারা যখন ঘরে চলে গিয়েছিল, তখন পুলিশের একজন সদস্যও বাড়ি যায়নি। বরং ফ্রন্ট লাইনে থেকে কাজ করেছেন। অনেক মানুষকে সেবা দিতে গিয়ে শহীদও হয়েছেন।’

বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি জনগণের প্রথম ভরসার স্থল হতে। থানায় যারা আসছেন, তাদের প্রাপ্ত সেবা দিতে। বন্দর থানায় যদি জিডি, অভিযোগ করতে বা পুলিশ ক্লিয়ারেন্স নিতে এসে টাকা চায়, তাহলে অবশ্যই আমাকে জানাবেন। বন্দর থানায় দালালের কোন স্থান নেই, সরাসরি আসবেন প্রাপ্তসেবা নিয়ে যাবেন। আপনাদের জন্য আমার অফিসের দরজা খোলা।’

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন আহম্মেদ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর সুলতান আহমদ, কাউন্সিলর হান্নান সরকার প্রমূখ।

0