জয়নালের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ‘ফটোসেশনের জন্য ২ বার পতাকা উত্তোলন’

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: একবার আনুষ্ঠানিক ভাবে পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। পরে মনে পড়েছে, জাতীয় সঙ্গীত বাজানো হয়নি, তোলা হয়নি ছবি। তাই সেই পতাকা নামিয়ে আবারও উত্তোলন করা হয়েছে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা। সেই সাথে করা হয়েছে নতুন করে ফটোসেশন।

মো. জয়নাল আবেদীনকে উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য নির্বাচিত করায় শনিবার (২১ নভেম্বর) বেলা ১২ টার দিকে চাষাঢ়ার আল-জয়নাল প্লাজায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টি।

পতাকার ব্যবহারবিধিতে স্পষ্ট লেখা আছে, ‘রাষ্ট্রপতি, সংসদ ভবন, সকল মন্ত্রণালয় এবং সচিবালয় ভবন, হাইকোর্টের অফিস, জেলা ও দায়রা জজ আদালত, বিভাগীয় কমিশনার, ডেপুটি কমিশনার/কালেক্টর, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদের অফিস, কেন্দ্রীয় এবং জেলা কারাগার, পুলিশ স্টেশন, শুল্ক পোস্ট, প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং এই রূপ অন্যান্য ভবন এবং সরকার কর্তৃক সময় সময় নির্ধারিত ভবনসমূহে সকল কর্মদিবসে ‘বাংলাদেশের পতাকা’ উত্তোলিত করা যাবে। রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী তাদের মোটরযান, জলযান এবং উড়োজাহাজে ‘বাংলাদেশের পতাকা’ উত্তোলন করতে পারেন। এছাড়া প্রতিমন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদাসম্পন্ন ব্যক্তিবর্গ, উপমন্ত্রী এবং উপমন্ত্রীর পদমর্যাদাসম্পন্ন ব্যক্তিবর্গ রাজধানীর বাহিরে দেশের অভ্যন্তরে অথবা বিদেশে ভ্রমণকালীন সময়ে তাদের মোটরযান এবং জলযানে ‘বাংলাদেশের পতাকা’ উত্তোলন করতে পারেন।’

সেখানে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কার্যালয় উদ্বোধন করতে গিয়ে বারবার পতাকা নামানো উঠানোয় বেশ সমালোচনা করেছে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ব্যক্তিরাই।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন আইনজীবী জানিয়েছেন, ‘২০১০ সালে প্রণীত সংশোধিত পতাকাবিধি অনুসারে জাতীয় পতাকার ব্যবহার বিধি ভঙ্গ করলে সর্বোচ্চ এক বছরের কারাদণ্ড বা পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা কিংবা উভয় দণ্ডের বিধান রয়েছে’।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ও যুগ্ম মহাসচিব মো. ইকবাল হোসেন তাপস, প্রধান বক্তা জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভাপতি ও জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির শিল্প বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইসহাক ভূঁইয়া।

এছাড়া বিশেষ অতিথি জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ মো. তাফাজ্জল হোসেন, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. মো. হানিফ মিয়া ও বীর মুক্তিযোদ্ধা এএইচএম সফিউল আলম আরিফ, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সচিব কাজী দেলোয়ার হোসেন ও সদস্য মো. আব্দুল বাতেনসহ আরও অনেকে।

অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটি জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টি নির্বাহী কমিটির আহ্বায়ক ও কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল মোতালিব।

0