টিটুর উদ্যে‌গে মুক্তিযোদ্ধাদের আর্থিক সহায়তা

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণণগঞ্জ: করোনা পরিস্থিতিতে অস্বচ্ছল যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের অর্থিক সহায়তা প্রদান করেছে আমেরিকার সামাজিক সংগঠন ‘ভালো’ (ব্রিজিং দ্যা গেপ)। সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৫টায় ক্রিষ্টাল প্যানেল কমিউনিটি সেন্টার বিএসবিএল কমার্সিয়াল কমপ্লেক্স প্রায় ৮০জন মুক্তিযোদ্ধাকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়।


এ সময় নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোস্তাইন বিল্লাহর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান ভুইয়া জুলহাস, নারায়লণগঞ্জ জেলা ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. নূরুল হুদা, নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সভাপতি তানভীর আহমেদ টিটু।

অনুষ্ঠানে তানভীর আহমেদ টিটু বলেন, আমার জীবনে সবচেয়ে সম্মানের স্থান যাদের দিয়েছি তারা হলেন আমার মা বাবা, বড় ভাই বোন। তার পরের পর্যায়ে আছে আমার দেশের মুক্তিযোদ্ধারা। যাদের জন্য আমরা একটি স্বাধীন দেশে বসবাস করছি। মুক্তিযোদ্ধারা না হলে আমরা এ জায়গায় পৌঁছাতে পারতাম না। আমার জীবনের সবথেকে আপসোস এর বিষয় হলো, আমি যুদ্ধ করতে পারি নাই দেশের জন্য। কিন্তু যারা দেশের জন্য যুদ্ধ করেছে তাদের জন্য আমার শ্রদ্ধার সীমা নেই।

তিনি আরও বলেন, আমাদের এমপি সেলিম ওসমার সাহেব আজকে আপনাদের এ অনুদান দিতে বলেছে, কারণ সে আজ রাষ্ট্রীয় কাজে ঢাকায় রয়ে গেছে। কিন্তু আমাদের তিনি বলেছেন আজকের মধ্যে আপনারদের অনুদান দেয়ার জন্য। তাই ডিসি সাহেবের সাথে পরামর্শ করে আজকে আপনাদের এখানে আসতে বলা হয়েছে। আমি  খুবই লজ্জিত যে আপনারা এতো কষ্ট করে এখানে এসেছেন। আপনাদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছি। আজ আপনারা জাতির সূর্য সন্তান। আপনাদের এখনে কষ্ট করে আসতে হয়েছে তার জন্য আমি লজ্জিত। আজকের আয়োজন করেছে যারা তাদের জন্য আপনারা দোয়া করবেন। আপনাদের আর কতদিন দেখতে পাবো জানিনা। হয়তো পরের প্রজন্ম আপনাদের দেখবে বইয়ের পাতায়। সশরীরে মুক্তিযোদ্ধাদের দেখার সুযোগ হয়তো আমাদের পরের প্রজন্মের হবে না।

ডিসি মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, আজকে আমাদের নারায়ণগঞ্জ ৫ আসনের এমপি থাকার কথা ছিলো তিনি আসতে পারেনি। আমি ধন্যবাদ জানাই ডা. শামীমসহ নারায়ণগঞ্জের সোনার ছেলেদের জন্য। ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রীকে কারণ তিনি আমার পরিবারের জন্য, মানে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য অনেক কিছু করেছেন। ২শ’ আড়াইশ টাকা থেকে আজ আমরা বীরমুক্তিযোদ্ধাদের ২০ হাজার টাকা দিতে পারি। আপনারা যুদ্ধ করেছেন এই ২০ হাজার টাকার জন্য নয়। আপনারা যুদ্ধ করেছেন এই দেশের জন্য এই বাংলার জন্য। একটি ভূখন্ডের জন্য। আজকে আপনাদের হাতে এই অনুদান তুলে দিতে পেরে আমরা খুবই আনন্দিত।

0