দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার কারণে আজ বিদ্যুৎ সংকট: বাসদ

লাইাভ নারায়ণগঞ্জ: চাল, ভোজ্যতেলসহ নিত্যপণ্যের দাম কমানো, বিদ্যুতের লোডশেডিং বন্ধ, জালানি খাতে দুর্নীতি, অব্যবস্থাপনা দূর করা ও সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলসবাসদ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (৫ আগষ্ট) বিকাল ৫টায় চাষাড়ায় নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে সমাবেশ, মানববন্ধন ও শহরে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সদস্যসচিব আবু নাঈম খান বিপ্লবের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, বাসদ সোনারগাঁ উপজেলার সমন্বয়ক বেলায়েত হোসেন, ফতুল্লা থানার সদস্যসচিব এস এম কাদির, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরীফ, সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আক্তার।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের মানুষের প্রধান খাবার ভাত। ভাত আসে চাল থেকে। সেই চালের দাম ক্রমাগত বাড়ছে। অন্যন্য খাদ্যপণ্যের দামও আকাশচুম্বি। সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে। দাম বৃদ্ধির জন্য দায়ী বাজার সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণে সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ। সাধারণ মানুষকে সর্বস্বান্ত করা মুনাফাখোর ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সরকার কোন ব্যবস্থা নিতে পারে নাই।
শ্রমজীবী মানুষের মজুরি বাড়েনি, মধ্যবিত্তের আয় বাড়েনি। সাধারণ মানুষের জীবনে নাভিশ্বাস উঠেছে, ব্যয় নিয়ন্ত্রণে মানুষ খাবার কমিয়ে দিতে বাধ্য হয়েছে। আমাদের খাদ্যের জোগানদাতা কৃষক, কৃষি উৎপাদন বিক্রি করে তার উৎপাদন খরচ পায় না। সরকার ইউরিয়া সারের দাম কেজিতে ৬ টাকা বাড়িয়ে দুর্দশাগ্রস্থ কৃষকদের আরও সংকটগ্রস্থ করেছে।
নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার গ্যাস, বিদ্যুতের দাম বারবার বৃদ্ধি করেছে। যুদ্ধ পরিস্থিতি বিবেচনায় জালানির বিষয়ে সরকার যথাযথ ব্যবস্থা নেয়নি। দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার কারণে আজ বিদ্যুৎ সংকট তৈরি হয়েছে। সরকার নিজেই লোডশেডিং এর ঘোষণা দিচ্ছে। একঘণ্টা লোডশেডিং বললেও সারা দিনই লোডশেডিং হচ্ছে। অনাহারী মানুষকে পিষ্ট করে সরকারের উন্নয়নের ডামাডোল বাজাচ্ছে।

এ সময় নেতৃবৃন্দ নিত্যপণ্যের দাম সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে নিয়ে আসা এবং লোডশেডিং, জালানিখাতে দুর্নীতি অব্যবস্থাপনা ও সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস বন্ধে গণবিরোধী সরকারের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান। নেতৃবৃন্দ আদমজী ইপিজেড-এ অবস্থিত বেআইনিভাবে বন্ধ বেকা গার্মেন্টস শ্রমিকদের বকেয়া বেতন, বোনাস, আইনানুগ পাওনাদি অবিলম্বে পরিশোধের দাবি জানান।