ধমক দিয়ে ভোট হয়না, এবার পরিবর্তন আসবে: তৈমূর আলম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ‘কাউকে গালি দিয়ে বা খারাপ কথা বলে তো মন জয় করতে পারবো না। সেটা করেই আজ সরকারি দলের মধ্যে বিশাল ফাটল, আর আমাদের মধ্যে ঐক্যবদ্ধ। এবার পরিবর্তন আসবে, আমি সেই পরিবর্তনের নির্বাচন করছি।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১১নং ওয়ার্ডে প্রচারণাকালে বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) এ কথা বলে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার।

এবার তাঁর প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন আওয়ামী লীগের সমর্থীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভীসহ ৬ জন।

তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, পুলিং এজেন্ট আমরা ৩ সেট তৈরি করে রেখেছি। আমাদের কোন পুলিং এজেন্ট যদি গ্রেপ্তার হয়ে যায়, তাহলে আরেক জন যাতে সেই দায়িত্ব পালন করতে পারে। কেন্দ্রকে রক্ষা করার জন্য প্রতিটি কেন্দ্র কমিটি করা হয়েছে।

শুরু থেকেই বলা হয়েছে, আপনি একজন নির্দিষ্ট নেতার প্রার্থী? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তৈমূর আলম বলেন, সরকার দলীয় প্রার্থী এসব কথা বলে, আমার জন্য একটি ভালো অবস্থান তৈরি করেছে, জনগণ এখন মনে করে, আমার দল বিএনপি ও ২০ দল এখন আমার সাথে আসছে। বরং সরকারি দলের মধ্যে বিভাজন তৈরি হয়েছে। এমপিদেরও ভোট আছে। তারা এমপিদের বিরুদ্ধে কথা বলে, কঠিন ভাবে সমালোচনা করে, জনগণের মাঝে এই ম্যাসেজটা দিয়েছে। যেটা এমপি সাহেব বলেছে, যে বল প্রয়োগ করে, চাপ সৃষ্টি করে, দমক দিয়ে ভোট নেওয়া যায় না।

তৈমূর আলম বলেন, ‘আরেকটি কথা বলতে চাই, আমার দলের নেতাকর্মীদের যে ভাবে হয়রানী করছে, সরকারি দলের নেতাকর্মীদের হয়রানী করছে, তাদেরও কমিটি ভেঙ্গে যাচ্ছে। তাই আমি মনে করি, এমপি সাহেবের কথাটাই সঠিক। দমক দিয়ে কাজ করানো যাবে না।’