নারায়ণগঞ্জে রাস্তার পাশে ফুটবল ভক্তদের ভীড়

ক্রীড়া করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বিশ্বকাপ আসলেই উম্মাদনা দেখা দেয় ফুটবল প্রেমিদের মাঝে। এবারের আসরেও সেমনটাই হয়েছে। প্রিয় দলের জার্সি গায়ে শোভ্রাযাত্রা অথবা, বিশাল বিশাল পতাকা টানানো এমনকি নিজের বাড়িকেই প্রিয়দলের পতাকার আদলে রং করা তো আছেই। আরেকটি বিষয় যা জেলা জুড়ে চোখে পরার মতো তা হলো, রাস্তার পাশেই ফুটবল ভক্তদের ভীড়। মুলতো সড়কের পাশে কোন এক দোকানের টিভিতে ফুটবল খেলা চলাকালিন জরো হতে থাকে ফুটবল ভক্তরা। যা গড়ায় দীর্ঘ সময় পর্যন্ত।

নারায়ণগঞ্জ শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে এইসব ভীড় একটু বেশিই লক্ষ্য করা যায়। বিশেষ করে ইলেক্ট্রনিক্স এর দোকানের সামনে।

ফুটবল খেলার প্রতি মানুষের এই উচ্ছাস ও উন্মাদনা বহু পুরানো। একসময় গ্রামের দু’চার পাড়াতে একটি টেলিভিশন ছিল। তখনও উৎসুক মানুষের অপলক দৃষ্টি থাকতো সেই বোকা বাক্সের দিকে। সাদাকালো টিভির সেই যুগ এখন আর নেই। টিভি রয়েছে প্রতিটি বাসাই। তবে, উৎসুক মানুষের ভীড় ঠিকই আছে।

কেউ কেউ বিশ্বকাপ খেলা দেখতে ব্যবস্থা করে প্রজেক্টরের, আবার কেউ নিজের বাসাতেই বন্ধু পরিচিতদের নিয়ে বসে। তবে খেটে খাওয়া মানুষ ও পথশিশুরা অনেকটাই বঞ্চিত হয় এই আনন্দ থেকে। তবে বিশ্বকাপ ফুটবলের আনন্দ যেনো তারা কোন ভাবেই হাতছাড়া করতে চায় না। তাই বিভিন্ন মুদি দোকান, বিশেষ করে ইলেক্ট্রনিক্স এর দোকানের সামনে জড়ো হয় তারা। প্রিয় দলের প্রতি ভালোবাসা নিয়ে রাস্তার পাশে দাড়িয়েই উপভোগ করে খেলা।

এরকমই একজন রিকশা চালক জয়নাল মিয়া। তাকে দেখা গেলো বঙ্গবন্ধু সড়কে অবস্থিত এলজি ইলেক্ট্রনিক্স এর দোকানের বাই। ২৬ নভেম্বর পোল্যান্ড-সৌদি আরব খেলা চলাকালীন দাড়িয়েছিলেন তিনি। এবারের বিশ্বকাপে জয়লাল মিয়া সৌদি আরবের সমর্থক। তিনি জানান, সকালে রিকশা নিয়ে বের হই, আর রাতে দেড়ি করে বাসায় ফিরি;খেলা দেখা জন্য সময় পাই না। তাই এখানে দাড়িয়ে খেলা দেখছি।

একই স্থানে দেখা মিললো বেশ কিছু পথশিশুর। তারাও অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে দোকানের বাইরের দিকে মুখ করে রাখা বিশাল টিভির দিকে। তারা কোন দলের সমর্থক না হলেও উপভোগ করছে বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা।

শুধু নিম্ন আয়ের মানুষই নন, এইসব স্থানে খেলা দেখার জন্য ভীড় জমায় বিভিন্ন শ্রেনী পেশার ফুটবল ভক্তরাও।