না.গঞ্জে ট্রেনের লাইনচ্যুত: ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি, সংষ্কার কাজ চলছে

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ শহরের দ্বিগুবাবুর বাজার এলাকার ট্রেনের ৩ বগি লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনায় ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টা চল্লিশ মিনিটে রাজধানীর কমলাপুর থেকে নারায়ণগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে ২২২ নম্বরের যাত্রিবাহী ট্রেনটি। দুপুরে চাষাঢ়া স্টেশনে যাত্রি নামিয়ে নারায়ণগঞ্জ মূল স্টেশনের উদ্দেশ্যে রওনা হও ট্রেন। নগরীর দুই নম্বর রেলক্রসিং এলাকা অতিক্রম করার পর পেছনের চারটি বগির বাম পাশের একটি করে চাকা রেললাইনের মাঝখানে পড়লে বিকট শব্দে ট্রেনটি থেমে যায়। এসময় ট্রেনটি একদিকে হেলে পড়লে যাত্রিরা আতংকিত হয়ে হুড়োহুড়ি করে নেমে পড়েন।

স্থানীয়রা বলছেন, রেললাইন মেরামতের কাজ করা অবস্থায় দ্রুত গতিতে ট্রেনটি চলার কারণে এই দূর্ঘটনা ঘটেছে। তবে তদন্ত কমিটির প্রধান জানিয়েছেন, দূর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, করোনা সংক্রমনের কারণে গত পাঁচ ছয় মাস ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লোকাল রেলরুটের রেললাইনে ত্রুটি দেখা দেয়। সেগুলো মেরামতের জন্য বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নগরীর দুই নম্বর রেলগেইট এলাকায় রেললাইন সংস্কারের কাজ চলছিল।

তবে স্থানীয়দের দাবি, রেললাইনের কাজ চলা অবস্থায় এমন দ্রুত গতিতে ট্রেনটি চালানোর কারণেই এই দূর্ঘটনা ঘটেছে। এর জন্য চালককেই দায়ি করছেন তারা।

এই ঘটনার পর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রেলরুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে ট্রেনলাইন সচল করতে রেলওয়ে গঠিত তদন্ত কমিটির কর্মকর্তারাসহ ঢাকা থেকে আসা অর্ধশতাধিক সদস্যের উদ্ধারকারী দল বিকেল চারটা থেকে কাজ শুরু করেন।

তদন্ত কমিটির প্রধান ও রেলওয়ের সহকারি পরিবহন কর্মকর্তা মো: আমিনুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। তবে দূর্ঘটনার কারণ উদঘাটনসহ দ্রুত সময়ের মধ্যে লাইনচ্যুত বগিগুলো সচল করে ট্রেন চলাচলের ব্যবস্থার চেষ্টা চলছে।

নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রেল রুটে একটি ডেমুসহ তিনটি লোকাল ট্রেন প্রতিদিন ১৪ বার করে ২৮ বার আসা যাওয়া করে। একেকটি ট্রেনে প্রতিবার প্রায় দুই হাজার যাত্রী আসা যাওয়া করেন। সারাদিনে চলাচল করেন প্রায় ৫০ হাজার যাত্রী।

0