পু‌লিশ‌কে র‌নি `রাজপ‌থে আপনার সন্তান-ভাই, চিন্তা ক‌রে গু‌লি কর‌বেন`

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ভোলায় মিছিলে পুলিশের হামলা ও গুলিতে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আব্দুর রহিম নিহত হওয়ার প্রতিবাদে, কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মশিউর রহমান রনি নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছেন।

বুধবার (৩ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১ টায় চাষাঢ়া রেল স্টেশনের সামনে থেকে ওই বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব ভবনের সামনে এসে শেষ করে। পরে প্রেস ক্লাব ভবনের সামনে নেতাকর্মীদের নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন।

এ সময় মিছিলে আরও উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের আহবায়ক গোলাম ফারুক খোকন, যুগ্ম আহবায়ক কবির হোসেন, যুবদলের সাবেক সিনিয়র যুগ্ন সম্পাদক শহিদুর রহমান স্বপনসহ জেলা যুবদলের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা।

নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মশিউর রহমান রনি বলেন, আমাদের এখন রাজপথে নামার সময়। আমরা যারা জাতীয়তাবাদী দলের আদর্শের সৈনিক, তারা দীর্ঘ ১৫ বছর এই রাজপথে থেকে আন্দোলন করার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। কিন্তু আমাদের প্রাণ-প্রিয় নেতা তারেক রহমান কোন উশৃংখল রাজনীতি পছন্দ করেন না, তিনি শান্তি প্রিয় মানুষ। উনার বাবা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান এ দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য একটি দল গঠন করেছিলেন। এদেশকে একটি সুশৃঙ্খল রাষ্ট্র হিসেবে বহির্বিশ্বে পরিচয় করাতে চেয়ে ছিলেন। বর্তমান খুনি হাসিনা সরকার ও উনার বাবা যতদিন ক্ষমতায় ছিলেন, এদেশের মানুষকে হত্যা করেছিলেন। এদেশের মানুষের ভোটাধিকার লঙ্ঘন করেছিলেন।

পুলিশ বাহিনী সদস্যদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আমি আপনাদের কিছু কথা স্মরণ করিয়ে দিতে চাই। আপনারা ইমরান এইচ সরকারকে চেনেন মনে হয়। তাকে কিন্তু ব্যবহার করেছিল এই খুনি হাসিনা। এদেশের সেনাবাহিনীকেও ব্যবহার করেছিলেন এই খুনি হাসিনা। আজকে আপনাদের ব্যবহার করছেন। খুনি হাসিনার যখন প্রয়োজন হবে, আর যাকে প্রয়োজন হবে তখন তাকে ব্যবহার করবে। আজকে আপনাদের ব্যবহার করে আপনাদেই ভাই, বোন, মা, বড় ভাই, চাচা, শশুরকে সে হত্যা করছে। এটা কেন করছে জানেন? কোন এক দেশের ইশারা ইঙ্গিতের কারনে করছ।

তিনি আরও বলেন, আমি পুলিশ ভাইদের উদ্দেশ্য করে বলতে চাই। আপনি আজকে যে ড্রেসটা পড়ে আছেন। এটা জনগণের ট্যাক্সের টাকায় কেনা। আপনাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে মানুষ সেবার জন্য, কাউকে মারার জন্য না। আমি বিশ্বাস করি আমার দেশের কোন মায়ের সন্তানকে পুলিশ বাহিনীর পোশাক পড়ে কেউ গুলি করে মারতে পারেনা। আমরা তো এদেশের সন্তান। আমরা তো দেশের বাইরে থেকে আসি নাই । আজকে যারা গুলি করছে তারা অন্য দেশ থেকে এসে পুলিশের পোশাক পড়ে আমাদেরকে গুলি করছে।

মশিউর রহমান রনি বলেন, আমি বলতে চাই একদিন আপনাদের চোখে পানি পড়বে, কিন্তু সেই দিন আর কিছু করার থাকবে না। আপনার সতর্ক হয়ে যান। আপনার সরকারি চাকরি করেন। সরকার আপনাদের বেতন দেয়, কিন্তু তা হয় আমাদের ট্যাক্সের টাকায়। তাই যেকোন সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আপনার একটা বার চিন্তা করবেন। রাজপথে কারা আছে? তারা আপনার সন্তান, আপনার ভাই, চাকর বাবা। তাই একটু চিন্তা-ভাবনা করে গুলি করবেন।

রনি বলেন, আমরা কোন গুলিকে ভয় পাই না। আমরা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শে গড়া সৈনিক। আমরা বেগম খালেদা জিয়ার সাংগঠনিক কাঠামোতে উপনীত হওয়া সৈনিক। আমরা এই এশিয়া মহাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা তারুণ্যের অহংকার জননেতা তারেক রহমানের সৈনিক। আমরা কাউকে ভয় পাই না।