বাংলাদেশ হিজবুর রাসুল(সা:)কমিটির ঈদ-এ মিলাদুন্নবী(দ:)’র শুভেচ্ছা

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: মহান আল্লাহ পাকের তরফ থেকে সমস্ত আলমের জন্য রহমত স্বরূপ রাসুল পাক(দ:)১২ই রবিউল আউয়াল এই দুনিয়াতে তাশরিফ আনেন। তাই সমস্ত নবী, প্রেমিক, আশেকে রাসুল(দ:)গন এই দিনে জশনে জুলুছ ,মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাত এর মাধ্যমে এই দিবসটি পালন করে থাকেন।

উল্লেখ্য, এই মহান দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য আমাদেরকে সন্ধান দিয়ে সর্বপ্রথম বাংলার জমিনে ১৯৭৮সালে রাসুল পাক(দ:)এর ৪০তম বংশধর ইমামে রাব্বানী,আওলাদেও রাসুল আল্লামা আবু নছর সৈয়দ আবেশ শাহ আল-মাদানী(রা:)পালন করে পবিত্র জুলুছ প্রতিষ্ঠিত করে গেছেন।

উক্ত জুলুছ মিছিলটি বর্তমান নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন সংলগ্ন বাইতুল ইজ্জত জামে মসজিদ প্রাঙ্গন থেকে আরম্ভ করে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় বাইতুল ইজ্জত জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে মিলাদ ও বিশেষ নমোনাজাত এর মাধ্যমে সম্পন্ন হয়।

তারই ধারাবহিকতায় বর্তমান তার উল্টরসূরী ইমামে আহলে সুন্নাত, আওলাদে রাসুল(দ:), আল্লামা সৈয়দ বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদী আল-আবেদী পীর সাহেব, ইমামে রাব্বানী দরবার শরীফ এর নেতৃত্বে চলমান রয়েছে।

ইমামে রাব্বানী, আওলাদে রাসূল (দ:), আবু নছর, আল্লামা সৈয়দ আবেদ শাহ আল-মাদানী (রা:) ভবিষ্যৎ বানী করে গিয়েছেন, এমন সময় আসবে যে এই দিবসটি জাতীয় দিবস হিসেবে রাষ্ট্রীয়ভাবে পালিত হবে। যা বর্তমান বাস্তবে রূপান্তরিত হয়েছে।

তাই সমস্ত মুসলমান ভাইদের প্রতি আহবান মাহন এই দিবসটি যথাযথ মর্যাদায় পালন করে আল্লাহ ও রাসূল পাক (দ:)এর রেজামন্দি হাসিল করুন।

0