বাপ্পী অনেকের চক্ষুশূল হওয়ার কারনে আমাদের মাঝে নাই: মেয়র আইভী

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াৎ আইভী জানিয়েছেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের আবর্জনাকে সম্পদে রুপান্তরিত করা হচ্ছে। সিটি কর্পোরেশনের আবর্জনা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের কেন্দ্রটি নগরীর জালকুড়ি এলাকায় স্থাপন করা হচ্ছে। এখান থেকে পাঁচ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেয়া তিনশ পঞ্চাশ কোটি টাকা দিয়ে এর মধ্যেই ২৩ একর জমি অধিগ্রহন করা হয়েছে। বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের জন্য বিদ্যুৎ মন্ত্রনালয় টেন্ডার করে ফেলেছে। স্বল্প সময়ের মধ্যেই প্রধানমন্ত্রী এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাজ উদ্বোধন করবেন।

বক্তব্যে মেয়র আরো বলেন, ২০১১ এর নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সামনে ছাত্রলীগ কর্মী রনিকে যেভাবে প্রতিপক্ষ প্রার্থী শামীম ওসমান মারধর করেছিলো, যদি র‌্যাব সেদিন সেখানে উপস্থিত না হতো তাকে সেদিন মেরে ফেলা হতো।

শনিবার সন্ধা সাড়ে ছয়টায় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৮ নং ওয়ার্ডের বাপ্পী চত্ত্বরে মুক্তিযোদ্ধা সড়কের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। স্থানীয় কাউন্সিলর কবির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন প্যানেল মেয়র বিভা হাসান, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি শরফুদ্দিন আহমেদ রবি, মুক্তিযোদ্ধা আবু হোসেন সিদ্দিক, আব্দুস সালাম খান প্রমুখ।

মেয়র তার বক্তব্যে আরো বলেন, জালকুড়িতে আবর্জনা থেকে বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ নেয়ার পর একজন বিশিষ্ট নেতা সেখানে বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করিয়েছিলেন। কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। জালকুড়ির বিদ্যুৎ কেন্দ্রের পাশেই আরো একটি আবর্জনা ডাম্পিং ষ্টেশন করা হচ্ছে। পঞ্চবটিতে আগের করা আবর্জনা ডাম্পিং ষ্টেশনের প্লাষ্টিক-পলিথিন থেকে জ্বালানী তেল তৈরী করা হচ্ছে। শহীদনগরে যে আবর্জনা ডাম্পিং ষ্টেশন করা হয়েছে এটিকেও জালকুড়ির মতো আধুনিক ষ্টেশন হিসেবে গড়ে তোলা হবে। যাতে এটি আবর্জনা ডাম্পিং ষ্টেশনের চাইতে বেড়ানোর জায়গা হিসেবে বেশি পরিচিতি পায়। যেমনিভাবে জালকুড়ির ডাম্পিং ষ্টেশনে এখন হাজার হাজার মানুষ ঘুরতে যায়।

তিনি চাষাড়া বোমা হামলায় নিহত শহর ছাত্রলীগের সভাপতি সাঈদুল হাসান বাপ্পীকে স্মরন করে বলেন, বেঁচে থাকলে সে হয়তো অনেক বড় নেতা হতো। কিন্তু অনেকে চক্ষুশূল হওয়ার কারনে সে আমাদের মাঝে নাই। তিনি বলেন, কাউন্সিলরদের মধ্যে কে আমার লোক কে ভাইয়ের লোক সেটি আমি দেখিনি। আমি আইভীর লোক তৈরী করিনি।

তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড দাবী করেছে প্রতিটি ওয়ার্ডে মুক্তিযোদ্ধাদের নামের তালিকার ফলক স্থাপনের। এটি আমার পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে। আমি ইনশাল্লাহ এটি করে দিবো।

তিনি বলেন, বাপ্পী সড়ক হতোনা যদি আমি না করে দিতাম। পৌর সভার সময়ে আপনারা মিছিল করে আমার কাছে গিয়েছিলেন বাপ্পীর নামে সড়কের নাম করতে। আমি করে দিয়েছি। স্বাধীনতা চত্ত্বর করে দিয়েছি। তিনি বলেন, এখানে ছোট্ট একটি খাল আছে। এ খালটি সংস্কার করতে পারিনি। আল্লাহ চাইলে যদি আবার নির্বাচিত হই খালের সংস্কার করে দিবো। কাউন্সিলরের অফিস করে দিবো। কমিউনিটি সেন্টার করে দিবো। এছাড়া কিন্তু আপনাদের ওয়ার্ডে আর কোনো কাজ নেই।

তিনি বলেন, কে কি বললো কে মিথ্যা প্রচারনা চালাইলো সেদিকে কান দেবেন না। আপনারা আঠারো বছর ধরে আমাকে দেখছেন। আমার উপর আস্থা রাখেন। ইনশাল্লাহ আমি আপনাদের কাজ করে যাবো।

0