বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে খোকন সাহার কঠোর হুশিয়ারি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বাংলাদেশ জাতীয়বাদী দলের (বিএনপি) কেন্দ্রীয় নেতাদের কঠোর হুশিয়ারি দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা।

তিনি বলেছেন, আগামীতে নারায়ণগঞ্জে আসবেন, মনে রাখবেন এটা বঙ্গবন্ধুর গোপালগঞ্জের পরের জেলা নারায়ণগঞ্জ। এখানে আওয়ামী লীগের সৃষ্টি হয়েছে। আমরা অনেক দৈর্য ধারণ করেছি। আগামীতে যদি নারায়ণগঞ্জে এসে উল্টাপাল্টা কথা বলেন নেত্রীর বিরুদ্ধে, আমরা কিন্তু সাথে সাথে দাত ভাঙ্গা জবাব দিয়ে দিবো। আমরা চাই শক্তিশালী বিরোধী দল। এর মানে এই না যে আপনারা আবারো ৭৫ ঘটাবেন, বিশৃঙ্খলা ঘটাবেন।

আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উপলক্ষে বুধবার (২৮ সেপেটম্বর) রাতে নগরীর ২নং গেট অবস্থিত জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে খোকন সাহা এই হুশিয়ারি দেন।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এই আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। পরে দোয়া মেষে মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে আগত নেতৃবৃন্দরা কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন করেন।

এসময় খোকন সাহা আরও বলেন, আওয়ামী লীগ একটি সুসংগঠিত দল। গত সিটি নির্বাচনে মেয়র আইভীকে মনোনয়ন দেযা হয়েছিলো, আমরা চেয়েছিলাম আনোয়ার ভাইয়ের মনোনয়ন। তবে, মেয়রকে পাশ করাতে আমরা সবাই মিলে কাজ করেছি। জোটের সার্থে নারায়ণগঞ্জের দুটি আসন আমাদের ছেড়ে দিতে হয়েছিলো। নেত্রী নির্দেশ দিছেন, আমরা তাদের পাশ করাতে আপ্রান চেষ্টা করেছি। এবার জেরা পরিষদ নির্বাচনে আমরা ১০/১২ জন মনোনয়ন চেয়েছি নেত্রী চন্দনশীলকে মনোনয় দিয়েছেন। আমরা সবাই মেনে নিয়েছি। আওয়ামী লীগ একটা শক্তিশালী ডিসিপ্লিন্টের দল।

তিনি বলেন, আগামী ১ অক্টোবর জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধীত সভা, ২ তারিখে মহানগরের বর্ধিত সভা করার নির্দেশষ দিয়েছে কেন্দ্র। জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন ২২ তারিখ, মহানগরের ২৪ তারিখ। এই সম্মেলনকে ঘিরে আপনারা দলকে চাঙ্গা করেন। আমরা আরেকবার প্রমান করতে চাই এটা নারায়ণগঞ্জ। আমাদের মধ্যে বিভেদ থাকতে পারে, তবে নেত্রীর প্রশ্নে আমরা কারো সাথে আপোশ করি না।

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে কোকন সাহা বলেন, গত ১ তারিখে রণক্ষেত্র করেছেন আপনারা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তাদের নিষিদ্ধ করাতে বিভিন্ন অপচেষ্টা চালাচ্ছেন। অনেকে বলেন বাংলাদেশ শ্রীলংকা হয়ে যাবে, তারা নিশ্চই এতে খুশি হন। আমরা বলতে চাই, রাজনীতি সুশৃঙ্খল ভাবে করেন। রাজনীতির ময়দানকে যদি কুলশিত করার চেষ্টা করেন তাহলে ছাড় দেয়া হবে না। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকেরা একত্রিত হয়েছে।

এসময় নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন- মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত চেয়ারম্যান বাবু চন্দনশীল, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জিএম আরাফত, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জিএম আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মাহমুদা মালা, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন, বিদ্যুৎ কুমার সাহা, শিখন সরকার শিপন, নাজমুল আলম সজল, ১৫নং ওয়াড আওয়ামী লীগের নেতা সুজিদ সরকার প্রমুখ।

, ,