বিক্রি করতে না পারায় রূপগঞ্জে কন্যাসন্তানকে আছার মেরে হত্যা

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জঃ বাংলাদেশে সমাজে কন্যাসন্তানের চেয়ে পুত্র সন্তানের গ্রহণযোগ্যতা বেশি। এর পিছনে কাজ করে দেশের সমাজব্যবস্থা, অর্থনীতি ও চিন্তাধারা। যেখানে পুত্রসন্তানের মুখ দেখে পিতার মুখে হাসি ফোটে, সেখানে কন্যাসন্তান প্রাপ্তির খবর পেয়ে গোমড়া মুখেই তাকে কোলে নেন পিতা। অনেক স্বামী অত্যাচার করেন তার স্ত্রীকে, বংশের প্রদীপ একটি পুত্রসন্তান না দিতে পারায়। যেখানে পুত্রসন্তান বংশের প্রদীপ, কন্যাসন্তানকে মনে করা হয় বোঝা। বাংলাদেশের সমাজব্যবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে এবার এক হতভাগ্য কন্যা খুন হলেন নিজের পিতার কাছে।

২১ নভেম্বর (শনিবার) রূপগঞ্জ উপজেলার ভুলতা ইউনিয়নের পাড়াগাও দক্ষিনপাড়া এলাকায় ঘটে এ নির্মম ঘটনা।

নিহত শিশুর মা খাদিজা আক্তার জানান, সে দক্ষিনপাড়াগাঁও এলাকার হারুন অর রশিদের মেয়ে। ২ বছর আগে পারিবারিক ভাবে পার্শ্ববর্তী মাছিমপুর হাউলিপাড়া এলাকার মৃত বাবুলের ছেলে কামালের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে কামাল হোসেন পরিবার নিয়ে পাড়াগাঁও শ্বশুর বাড়িতে বসবাস করে আসছিল।

তিনি আরো জানান, তার স্বামী আড়াইহাজার থানাধীন ছনপাড়া এলাকায় একটি হোটেলে চাকুরি করে। তার ছেলে সন্তান হলে সেখানে জনৈক এক ব্যক্তির কাছে পুত্র সন্তান বিক্রি করে দেয়ার কথা ছিল। তার সে স্বপ্ন পুরন না হওয়া সে ক্ষিপ্ত হয়ে শিশু মীমকে হত্যা করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মাহমুদুল হাসান লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, এ ঘটনায় রূপগঞ্জ থানায় মামলা কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন। আমরা দ্রুত হত্যাকারীকে আইনের আওতায় আনবো।

0