বিসিবি’র পরিচালক হওয়ায় টিটুকে গোগনগরবাসীর গণসংবর্ধনা

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালনা পর্ষদে পরিচালক পদে নির্বাচিত হওয়ায় নারায়ণগঞ্জের কৃ‌তি সন্তান তানভীর আহমেদ টিটুকে গণসংবর্ধনা দিয়েছে গোগনগর ইউনিয়নবাসী।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার গোগনগর ইউনিয়নের ফকির বাড়ি এলাকায় সৈয়দপুর বঙ্গবন্ধু স্কুলের মাঠে শনিবার (২৩ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৪টায় এ গণসংবর্ধনা দেয়া হয়।

বিশিষ্ট সমাজ সেবক হামিদ ফকির এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)’র নব নির্বাচিত পরিচালক তানভীর আহমেদ টিটু। যি‌নি একই সা‌থে নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক, নারায়ণগঞ্জ ক্লা‌বের সভাপ‌তি ও নারায়ণগঞ্জ ফুটবল এ‌সো‌সি‌য়েশনের সভাপ‌তি।

এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী ফজর আলী, নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের পরিচালক ইদী আমীন ইব্রাহিম খলিল, নারায়ণগঞ্জ সদর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল মামুন, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সৈয়দপুর বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য নাজির হোসেন ফকির, নারায়ণগঞ্জ মহানগর শ্রমিক লীগের নেতা মজিবর রহমান, গোগনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোসলেউদ্দিন মন্ডল, গোগনগর ইউনিয়নের বর্তমান মেম্বার ও আসন্ন ইউপি নির্বাচনের মেম্বার প্রার্থী শেখ মো. রফিক, গোগনগর ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার সৈকত হোসেন বেপারী, ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার তোফাজ্জল হোসেন, ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার তোফাজ্জল হোসেন কাবিল প্রমুখ।

গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী ফজর আলী বলেন, আমরা আজকে আনন্দিত যে, টিটু ভাই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পারিচালনা পর্ষদে পরিচালক পদে নির্বাচিত হয়েছেন। টিটু ভাই শুধু ক্রিকেট বোর্ডের ডিরেক্টর না ,আমাদের নারায়ণগঞ্জের সমস্ত খেলাধুলায় নিবেদিত প্রাণ। আজকে আমাদের গোগনগরে বঙ্গবন্ধু স্কুল করে দিয়েছেন মাননীয় সাংসদ একেএম সেলিম ওসমান, শুধু আমাদের গোগনগরে না, ওনি আমাদের নারায়ণগঞ্জে অসংখ্য স্কুল করে দিয়েছেন। আমি তার প্রতি জানায় কৃতজ্ঞতা।

গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিসিবি’র পরিচালক তানভীর আহমেদ টিটু বলেন, কিছু দিন আগে আমি আমার বাবাকে হারিয়েছি। যখন বাসা থেকে কোনো মুরুব্বি চলে যায় তখন বুঝা যায়, অভাবটা কতটুকু। আজকে এখানে এসে আমার আশেপাশে যত গুলো মুরুব্বি পেয়েছি, তাদের দোয়া পেয়েছি, সত্যি আজকে আমরা মনে হচ্ছে না, আমি বাবা ছাড়া একজন মানুষ। আমি সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, ‘আমি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে পরিচালক পদে নির্বাচিত হয়েছি সেই জন্য আজকে প্রথম সংবর্ধনায় এখানে এসে নিলাম। বাবা মারা যাওয়ার পর বিভিন্ন জায়গা থেকে আমাকে সংবর্ধনা দিতে চেয়েছে, আমি না করে দিয়েছি। কিন্তু ফজর ভাই বলেছে আপনাকে আমরা একটু চাই সম্মান জানানোর জন্য, আমি না করতে পারি নাই। আ্জকে এখানে এসে আমি দুই জন মানুষকে খুব মিস করতেছি। একজন হচ্ছে আমাদের সালাউদ্দিন ভাই, আরেকজন হচ্ছে নওশেদ ভাই। তিনি খুব মাটির মানুষ ছিলেন, এছাড়া এই এলাকার খুব প্রিয় মানুষ ছিলেন তারা দুইজনই। আমি তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। আমার বাবার জন্য আপনারা দোয়া করবেন। কারণ দুনিয়াতে থাকা অবস্থায় আমরা বিভিন্ন পাপ করি, অন্যায় করি, দুনিয়া থে‌কে চলে যাওয়ার পরে আমাদের আর কিছু করার থাকে না দোয়া ছাড়া।’

তানভীর আহমেদ টিটু বলেন, ‘আমি আপনাদের দোয়ায় ২০১১ সালে নারায়ণগঞ্জ জেলায় ক্রীড়াসংস্থার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছি। তার পর থেকে টানা তিনবার জেলা ক্রীড়া সংস্থার দায়িত্ব পালন করছি। আমার স্বপ্ন ছিলো একটাই। যেহেতু আমি নিজে প্লেয়ার ছিলাম, যে সুবিধা গুলো নারায়ণগঞ্জে প্লেয়ার গুলোর ছিলো না, সেই সুবিধা গুলো তৈরি করা, এইটা ছিলো আমার প্রথম স্বপ্ন। আমি ধন্যবাদ জানাই আমাদের সাবেক উপ-মন্ত্রী আরিফ হাসান জয়কে, যিনি ফুটবল প্লেয়ার ছিলেন, আমি আমেরিকা যাওয়া আগে তাকে বলেছিলাম- সব মন্ত্রীর আমলেই আমাদের নারায়ণগঞ্জে স্টেডিয়াম করবে বলে, কিন্তু আর করা হয় না। তিনি আমাকে বলেন, টিটু ভাই আপনে যান দেশের বাহিরে, আপনে এসে দেখবেন আমি আমার কাজ করে ফেলেছি। এক মাস আমি দেশে ছিলাম না, আমি এসে দেখি সে নারায়ণগঞ্জে স্টেডিয়ামে জন্য টেন্ডার কমপ্লিট করে ফেলেছে। আমরা নারায়ণগঞ্জে একটা সুন্দর মাঠ পেয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি যেহেতু কোন রাজনীতি করি না, রাজনীতির কোনো বক্তব্য আমি এইখানে দিচ্ছি না। আমাদের সমাজকে ভালোভাবে পরিচালনা করার জন্য কিছু ভালো মানুষ দরকার। আপনারা জানেন, আপনাদের এলাকার ভালো মানুষ কে। আমি জেলা প্রশাসকের কাছে অনুরোধ করবো, আপনাদের গোগনগরে একটি খেলার মাঠ করে দিতে। এছাড়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে আপনাদের এই স্কুল মাঠে একটি ক্রিকেট খেলার পিচ করে দিবো প্যাক্টিস করার জন্য। আমি চাই গোগনগরের একটা খেলার টিম যাতে জেলা ক্রীড়া সংস্থায় থাকে। সেটা যে কোন খেলার হোক।’

0