বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় অ্যাসিড নিক্ষেপ, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় অ্যাসিড নিক্ষেপে ঝলসে দেয়ার অভিযোগে রূপগঞ্জের এক যুবকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী এক নারী। বুধবার দুপুরে নরসিংদীর পলাশে থানায় মামলাটি করেন তিনি।এ ঘটনায় অভিযুক্ত গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

অভিযুক্ত ছেলের নাম শফিকুল ইসলাম পঙ্খী মিয়া (৩০)। সে রূপগঞ্জ উপজেলার টাওরা গ্রামের মৃত রহিম মিয়ার ছেলে।

অভিযোগ সূত্র জানা যায়, তালাকপ্রাপ্ত এক সন্তানের জননী মেয়েকে নিয়ে নরসিংদীর পলাশে উপজেলার ডাঙ্গা ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামে বাবার বাড়িতে বসবাস করেন। গত ৪ মাস আগে রূপগঞ্জ উপজেলার শফিকুল ইসলাম পঙ্খী মিয়া বিয়ের প্রস্তাব দেন। তার স্বভাবগত বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে ওই বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন তিনি। এরপর থেকে শফিকুল ইসলাম পঙ্খী মিয়া বিভিন্ন সময় রাস্তাঘাটে ওই নারীকে একা পেলেই বিয়ের প্রস্তাব দিতেন। কিন্তু প্রতিবারই তিনি বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন। এতে পঙ্খী মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে প্রাণনাশের হুমকিসহ ভয়ভীতি দেখান।

সোমবার ওই নারী নিজের ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন। রাত সাড়ে ৩টার দিকে ঘুমন্ত অবস্থায় তার ওপর অ্যাসিড নিক্ষেপ করেন পঙ্খী মিয়া। এসময় ভুক্তভোগীর চিৎকারে এলাকার মানুষ ছুটে এলে পঙ্খী মিয়া পালিয়ে যান। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পলাশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে নরসিংদীর সদর হাসপাতালে পাঠান। সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন।

পলাশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ওই নারীর শরীরের ১৬ শতাংশ ঝলসে গেছে। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে নরসিংদীর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পলাশ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানান, অভিযুক্ত শফিকুল ইসলাম পঙ্খী মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অ্যাসিড নিক্ষেপের কথা স্বীকার করেছেন তিনি।