বৃষ্টির পানিতেই ৩ মাস বন্দী নবীগঞ্জের মানুষ

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ছেলেমেয়েকে নিয়ে ঘরের ভেতর জানালার পাশে বসে ছিলেন মা। উঠানভরা পানি বারান্দা ছুঁই ছুঁই করছে। চলাচলের জন্য উঠানের ভেতরে প্রথম বালি ভর্তি বস্তা পাতা হয়েছিল। সেই বালির বস্তা তলিয়ে যাওয়ার পরে তার ওপর দিয়ে ইট বিছিয়ে দেওয়া। সেই ইটও তলিয়ে যাওয়ায় এখন পানিতেই চলাচল করতে হচ্ছে।

এ অবস্থা নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ২৩ ও ২৪নং ওয়ার্ডের একরামপুর এলাকার পাশ্ববর্তী নবীগঞ্জ, বক্তারকান্ধি আমিরাবাদের। এই পানি বন্যার নয়, বৃষ্টির। নামতে না পেরে আটকে আছে। বৃষ্টির পানি আটকে গিয়ে এলাকা গুলোতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ‘অপরিকল্পিতভাবে জলাশয় ভরাট ও নাজুক ড্রেনেজ ব্যবস্থার কারণে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।’

কোথাও কোথাও ঘরের ভেতরে পানি ঢুকে পড়েছে। পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতায় হাজারো মানুষ দুর্বিষহ জীবন-যাপন করছেন গত তিন মাস যাবত। বন্দরের কয়েক স্থানে জলাবদ্ধতা স্থায়ী রূপ নিয়েছে।

২৫ সেপ্টেম্বর শনিবার সরেজমিনে এলাকা ঘুরে দেখা যায়, মানুষের বাড়ি ঘরে পানি জমে আছে। মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছেন না। ঘরের মধ্যে পানি। বাইরের টয়লেটগুলো পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় মল-মূত্রে আর পানিতে একাকার অবস্থা। পচা দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে পানি থেকে। নিরুপায় মানুষ কতদিনে পানি কমবে সেই আশাই দিন কাটাচ্ছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৩নং ২৪নং ওয়ার্ডের একরামপুর ও বক্তারকান্ধি আমিরাবাদ জাইলাপাড়ার এলাকার কয়েকশ’ মানুষ দীর্ঘদিন ধরে পানিবন্দি জীবনযাপন করছেন।

আশপাশের পুকুর ও জলাশয় ভরাট করে ফেলায় পানি নিষ্কাশনের অভাবে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে বলে ওই এলাকার বাসিন্দা সুমি আক্তার জানান।

২৩নং ওয়ার্ডের একরামপুর সিএসডি গেট এর অপর পাসের এলাকার হবি খাঁন ও ২৪নং ওয়ার্ডের বক্তারকান্ধি আমিরাবাদ জাইলাপাড়ার এলাকার কালাম মিয়া জানান, বাইরে পানি, ঘরের মধ্যেও পানি। বাচ্চাদের নিয়ে সব সময় আতংকে রয়েছি। সাপ, জোঁক, কেঁচোর উৎপাদ তো আছেই। রাতে ঘুমোতে ভয় লাগে। চুলায় পানি জমে থাকায় রান্না করার কোনো উপায় নেই। এলাকার শতাধিক পরিবার এভাবে পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছেন। অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে আমাদের।
এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: সাইফুদ্দিন আহম্মেদ দুলাল প্রধান বলেন, আমার কাছে হবি খানসহ কয়েক জন লোক আসছিলো তাদের জলাবদ্ধতার ভুগান্তির কথা বলেছে আমি কালকেই আমার নিজ অর্থায়নে তাদের জলাবদ্ধতা থেকে মুক্ত করবো।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২২,২৩,২৪ নং ওয়ার্র্ডের মহিলা কাউন্সিলর শাওন অংকন বলেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে মেয়রের সঙ্গে আলাপ করে ব্যবস্থা নেবো।

0