ভুইগড়ে গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, স্বামী আটক

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লায় ৩ সন্তানের জননী এক গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের স্বামীকে আটক করা হয়েছে।

ফতুল্লার ভুইগড় কড়ইতলা দুলাল মিয়ার ভাড়া বাসা থেকে বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নিহতের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত ওই গৃহবধুর নাম সুমা আক্তার (৩৫)। সে রাজধানী ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানার শহিদ ফারুক সড়কের মৃত তোফাজ্জল হোসেনর পুত্র টুটুলের স্ত্রী।

নিহত গৃহবধূর মা পারুল বেগম (৬০) জানায়, ১৭ থেকে ১৮ বছর পূর্বে ইসলামিক শরিয়ত মোতাবেক তার মেয়ে সুমা আক্তারের সাথে আটককৃত টুটুলের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে শ্রাবন্তি (১৫), বৃষ্টি (৪) নামক দু’টি মেয়ে ও রাফি (৮) নামক একটি পু্ত্র সন্তান রয়ছে। বিয়ের পর থেকে টুটুল বিভিন্ন কারনে তার মেয়েকে শারিরীক এবং মানসীক ভাবে নির্যাতন করে আস ছিলো। যার পরিপ্রেক্ষিতে তার মেয়ে মানসিক রুগি হয়ে পরেছিলো। পরবর্তীতে তার মেয়েকে চিকিৎসা করালে তার মেয়ে কিছুটা সুস্থ হয়। দুই বৎসর পূর্বে তার মেয়ের অজান্তেই তার মেয়ের স্বামী দ্বিতীয় বিয়ে করে। এতে করে তার মেয়ে মানসীক ভাবে ভেঙে পরে। বৃহস্পতিবার দুপুর বারোটার দিকে তিনি মোবাইল ফোনো সংবাদ পান যে তার মেয়ে সুমা আক্তার নিজ ঘরের ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেছে।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ইনচার্জ রকিবুজ্জামান জানান, সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছে। নিহতের মা আত্নহত্যার প্রচারনার অভিযোগ এনে নিহতের স্বামী কে অভিযুক্ত করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। নিহতের স্বামী কে আটক করা হয়েছে।মামলা পক্রিয়াধীন রয়েছে বলে তিনি জানান।

0