মামুনুল ইস্যু: হেফাজতের ৫ কর্মী রিমান্ডে

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: কাওমি মাদ্রাসা ভিত্তিক সংগঠন হেফাজতে ইসলামের হরতালের ইস্যুতে নারায়ণগঞ্জে সহিংসতা ও সোনারগাঁয়ে রিসোর্ট ভাংচুরের ঘটনায় সন্ত্রাস বিরোধী আইনের একটি মামলায় ৫ জনকে ২ দিনের রিমানোড নেয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত।


রোববার (২ মে) বিকেলে আসামীদের বিরূদ্ধে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন পুলিশ। পরে শুনানি শেষে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল মহোসীন এর আদালত এ রিমান্ডের আদেশ দেন।

রিমান্ডে প্রেরণকৃতরা হলেন-আলমগীর, রাসেল, নুর উদ্দিন, আকবর হোসেন ও ফারুক হোসেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কোর্ট পুলিশের সহকারী উপ-পরিচালক এএসআই মো. রোকনুজ্জামান বলেন, আসামীদের বিরূদ্ধে সন্ত্রাস বিরোধী আইনের একটি মামলায় ৭ দিনের করে রিমান্ডের আবেদন করলে আদালত প্রত্যেকে ২ দিনের করে রিমান্ডের আবেদন মঞ্জুর করেন। প্রসঙ্গত, ২৮ মার্চ হেফাজত ইসলাম কর্তৃক ডাকা সারা দেশব্যাপী সকাল সন্ধ্যা হরতাল কর্মসূচী পালনকালে দুস্কৃতিকারীরা নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মৌচাক, সানারপাড় ও শিমরাইল এবং চিটাগাং রোড এলাকায় ব্যাপক সহিংসতা, গাড়ি ভাংচুর, নাশকতা সৃষ্টি ও অগ্নি সংযোগ করে জনমনে ভয়ভীতি সঞ্চার ও সরকারী কাজে বাধা সৃষ্টি করে।

অপর দিকে, ৩ এপ্রিল হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক একজন নারীসহ সোনারগাঁয়ের ‘রয়্যাল রিসোর্টে’ স্থানীয় জনতার হাতে অবরুদ্ধ হওয়ার পর বিক্ষুব্ধ হেফাজতকর্মীরা রয়্যাল রিসোর্ট ভাঙচুরসহ এলাকায় তান্ডব সৃষ্টি করে। রয়্যাল রিসোর্ট ছাড়াও হেফাজতকর্মীরা ঘটনার দিনে সোনারগাঁ এলাকার একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ব্যাপক সহিংসতা, গাড়ি ভাঙচুর, নাশকতা সৃষ্টি ও অগ্নি সংযোগ করে যান চলালিয়ে জনমনে ভয়ভীতি ও সরকারী কাজে বাধা সৃষ্টি করে। এছাড়াও সোনারগাঁও আওয়ামী লীগের অফিস ভাঙচুর করে।

0