মুক্তিযুদ্ধে হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ একত্রে যুদ্ধ করেছে: খোকন সাহা

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট খোকন সাহা বলেছেন, পৃথিবীতে অনেক দেশ আছে স্বাধীন হলেও মিত্র বাহীনির সদস্যরা কখনো বন্ধু রাষ্ট্রে ছেড়ে চলে যেতেন না। কিন্তু বঙ্গবন্ধু সেটি দেখিয়েছেন। ইন্দিরা গান্ধীর কাছে আমি ব্যক্তিগত ভাবে এবং বাঙ্গালী জাতি ঋণী।

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৬ জানুয়ারী (শনিবার) নগরীর সরকারি গণগ্রন্থাগার মিলনায়তনে বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক কমিটির নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে এ আয়োজন করা হয়। সংগঠনের নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি নাজিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক কমিটির আহবায়ক ও সাবেক রাষ্ট্রদূত ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট খোকন সাহা।

প্রধান বক্তা এ্যাডভোকেট খোকন সাহা বলেন, সর্বপ্রথম আমি বীর মুক্তিযোদ্ধা, যারা শহীদ হয়েছেন, তাদের সকলের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। ভারতের সাবেক প্রধান মন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী, মুক্তিযুদ্ধে আমাদের বিভিন্ন ভাবে সহযোগীতা করেছেন। বঙ্গবন্ধু ১০ জানুয়ারী স্বদেশ প্রর্তাবর্তন করেছিলেন। লন্ডন থেকে ভারত, পরে ভারত থেকে বাংলাদেশে, ইতিহাস হয়তো অনেকেই জানেন না। ইন্দিরা গান্ধীর সাথে জাতির জনক সৌজন্য সাক্ষাৎ করে বলেছিলেন, ‘আপনার কাছে আমি ব্যক্তিগত ভাবে এবং বাঙ্গালী জাতি ঋণী’।

খোকন সাহা আরও বলেন, পৃথিবীতে অনেক দেশ আছে, স্বাধীন হলেও মিত্র বাহীনির সদস্যরা কখনো বন্ধু রাষ্ট্রে থেকে চলে যেতেন না। কিন্তু বঙ্গবন্ধু সেটি দেখিয়েছেন। মুক্তিযুদ্ধে যারা শহীদ হয়েছিলো, তাদের লাশ পরে ছিলো। কাক ঠুকরে ঠুকরে খেয়েছে লাশ। বিবস্ত্র নারী পরে ছিলো। এতো কিছু হয়তো দেখার সুযোগ হয়নি। কিন্তু আংশিক কিছুটা দেখেছি। যে রক্ত আমি দেখেছি, সেখানে লিখা ছিলো না কোনটা মুসলমান, কোনটা হিন্দু, কোনটা বৌদ্ধ। সবাই ছিলো বাঙ্গালী। মুক্তিযুদ্ধে হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ একত্রে যুদ্ধ করেছে। আর একটি অংশ মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীতা করেছিলো।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক বলেন, ‘বঙ্গন্ধুর নেতৃত্বে এই দেশ স্বাধীন হয়েছে। আর সেটিও অনেক দ্রুতই। মাত্র নয় মাসের মধ্যে আমরা আমাদের দেশ স্বাধীন করেছি। যদিও কিছু কিছু লোক আছে যারা আমাদের এই মুক্তিযুদ্ধকে ছোট করে দেখে। আধুনিক রাষ্ট্র গণতান্ত্রিক ও অসাম্প্রদায়িক হয়। আর আধুনিক রাষ্ট্র নির্মাণের স্বপ্ন দেখেই যুদ্ধের পর এদেশের সংবিধান প্রণীত হয়েছিলো। যারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিলো তারাই অগণতান্ত্রিক শাসকদের সহযোগিতা করেছিলো’।

সাবেক ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি এ্যাড.সাব্বির আহমেদ সাগর বলেন, ‘দেবোত্তর ও ওয়াকফ সম্পত্তি এগুলো সাধারণ মানুষের। যারা এই সকল সম্পত্তি আত্মসাতের চেষ্টা করছে, তাদের দ্যর্থ ভাষায় বলতে চাই, আপনারা জনগণের সম্পদ জনগণের মধ্যে ফিরিয়ে দিন’।

বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক কমিটির জেলা শাখার যগ্ম সদস্য সচিব এড. কামাল হোসেনের সঞ্চালনায় এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক কমিটি যুগ্ম আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সালাউদ্দিন, জেলা পরিষদের প্যানেল মেয়র ও মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদা মালা, নারায়ণগঞ্জ পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক শিপন সরকারসহ আরও অনেকে।

0