মুফতি বশিরউল্লাহ যে সব কার‌নে গ্রেফতার হ‌য়ে‌ছেন. . .

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ জেলা হেফাজত ইসলামের সাধারণ সম্পাদক মুফতি বশির উল্লাহ দুটি সুনির্দিষ্ট কারণে আটক হয়েছেন । গত ২৮ শে মার্চ হেফাজতের হরতালকে কেন্দ্র করে উস্কানিমূলক বক্তব্য ও সোনারগাঁয়ে হেফাজত নেতা মামুনুল হক রিসোর্ট কাণ্ডের ঘটনায় নেতা কর্মীদের উত্তেজিত করেন তিনি। মামুনুল হক কাণ্ডের পর কেন্দ্রীয় হেফাজত নেতাদের সরকারি বিরোধী আন্দোলনে নামতে বারবার তাগাদা দিচ্ছিলেন ওই হেফাজত নেতা। এছাড়া কাঁচপুর, শিমরাইল ও সাইনবোর্ড মোড়ে হরতালের সহিংসতায় উস্কানির মূল হোতা হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে মুফতি বশিরউল্লাহকে। এমন অভিযোগের সুনির্দিষ্ট তথ্য, মোবাইল রেকডিং ও সহিংসতার ভিডিও ফুটেজ এখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হস্তগত হয়েছে বলে জানিয়েছে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ।

পুলিশের একাধিক সূত্র জানায়, গত ২৮ শে মার্চ হেফাজতের হরতালের দিন ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়গকের শিমরাইল, সাইনবোর্ড কাঁচপুরের বিভিন্ন স্থানে উস্কানিকমূলক বক্তব্য রেখে নেতা কর্মীদের উত্তেজিত করে তোলেন মুফতি বশিরউল্লাহ। মুলত তার ইন্ধনে মহাসড়কে তান্ডবে অংশ নেয় হেফাজত কর্মীরা। এছাড়া গত ৩ এপ্রিল সোনারগাঁয়ে রয়েল রিসোর্ট নারীসহ হেফাজত নেতা মামুনুল হক অবরুদ্ধের ঘটনায় সোনারগাঁয়ে হেফাজত কর্মীদের মোবাইল ফোনে দিক নির্দেশনা দিয়ে উত্তেজিত করে তোলেন এই নেতা। এ ঘটনার পর গ্রেপ্তার এড়াতে তিনি কুমিল্লার চান্দিনায় চলে যান। সেখান থেকে মোবাইল ফোনে হেফাজতের কেন্দ্রীয় নেতাদের বারবার সরকারি বিরোধী আন্দোলনে নামার জন্য তাগাদা দিতে থাকেন বশিরউল্লাহ। ওই দিনই কেন্দ্রীয় হেফাজত নেতা কাশেমীকে সরকার বিরোধী আন্দোলনে নামতে বললে কাশেশী মুফতি বশিরউল্লাহকে দোয়া করতে বলেন। কিন্তু বশিরউল্লাহ বারবার সরকার বিরোধী আন্দোলনের জন্য জোর দিতে থাকেন।
সূত্রটি আরও জানায়, ইতিমধ্যে মুফতি বশিরউল্লাহর মোবাইল কথপোকথন রেকডিং, উস্কানিমূলক বক্তব্যের ভিডিও অডিও টেপ পুলিশের হস্তগত হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম মুঠোফোনে বুধবার দুপুরে সাংবাদিককে জানান, সাইনবোর্ড, কাঁচপুর ও শিমরাইলে হরতালের দিন সহিংসতার নেপথ্যে ছিল মুফতি বশিরউল্লাহর নির্দেশনা। এছাড়া সোনারগাঁয় মামুনুল হক কান্ডের সহিংসতার দিক নির্দেশনাও তিনি দিয়েছেন। সহিংসতায় মদদ ও সরকার বিরোধী কর্মকাণ্ডের যথেষ্ট সুনির্দিষ্ট তথ্য আমাদের কাছে রয়েছে। এ কারণেই তাকে আটক করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৩ এপ্রিল মঙ্গলবার রাত ১১ টায় সিদ্ধিরগঞ্জের সানারপাড় লন্ডন মার্কেট এলাকার নির্মাণাধীন বাড়ী থেকে তাকে আটক করা হয় নারায়ণগঞ্জ জেলা হেফাজতের সেক্রেটারী মুফতি বশিরউল্লাহকে ।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ শে মার্চ হরতালে সাইনবোর্ড কাঁচপুর ও শিমরাইলে হেফাজতের হরতালে প্রায় ৫০ টি গাড়ী ভাংচুর করে হেফাজত কর্মীরা। এছাড়া গত ৩ এপ্রিল সোনারাগাঁযে রয়েল রিসোর্টে হেফাজত নেতা মামুনুল হককে তার দাবিকৃত দ্বিতীয় স্ত্রীসহ অবরুদ্ধের ঘটনায় ব্যাপক ভাংচুর করে হেফাজত সমর্থকরা। এসব ঘটনায় সোনারগাঁও রূপগঞ্জ ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় র‌্যাব, পুলিশ সাংবাদিক ও ক্ষতিগ্রস্থ গাড়ীর মালিকরা বাদী হয়ে ১৭ টি মামলা দায়ের করেছে।

0