রূপগঞ্জে শিশু শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: রূপগঞ্জে এক স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে পরিবারের দাবী মেয়েকে হত্যার পর ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টায় উপজেলার গোলাকান্দাইল নতুন বাজার এলাকার একটি বাসা থেকে ওই শিশুর মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত শিশুর নাম মরিয়ম আক্তার (১০)। সে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার জালিয়া এলাকার বাচ্চু মিয়ার মেয়ে এবং শাইলজান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী।

মরিয়মের বাবা বাচ্চু মিয়া জানান , তিনি একজন রিকশাচালক। গত চার মাস আগে তিনি রূপগঞ্জের গোলাকান্দাইল নতুন বাজার এলাকায় বাসা ভাড়া নেন। তার স্ত্রীও স্থানীয় একটি গার্মেন্টসে চাকরি করেন। কাজের তাগিদে তারা মরিয়মকে রেখে প্রতিদিন সকালে বের হন আবার রাতে বাসায় ফেরেন। মঙ্গলবার বাড়িওয়ালা মোমেন একতি বিলে মাছ ধরতে যান। ওইখানে থেকে বাড়িওয়ালার মেয়ের সঙ্গে মাছ আনতে যায় মরিয়ম। এসময় মরিয়মের কাছ থেকে একটি মাছ পুকুরের পানিতে পড়ে যায়। কিন্তু বাড়িওয়ালা ও তার পরিবার মাছ চুরি করা হয়েছে বলে শিশুটির ওপর দোষারোপ করে। পরে বুধবার সন্ধ্যায় মরিয়মের ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া যায়।

বাচ্চু মিয়ার বলেন, মাছ নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরেই আমার মেয়েকে হত্যার পর ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

রূপগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) হুমায়ুন কবির মোল্লা লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আমাদের পুলিশ সাথে সাথে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করেছে। ইতিমধ্যে আমরা লাশ নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালে প্রেরন করেছি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

, , ,