লকডাউন বাস্তবায়নে ও জনসমাগম নিয়ন্ত্রনে মাঠে ম্যাজিষ্ট্রেট মাহমুদা জাহান

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে কঠোরভাবে লকডাউন কার্যকরে মাঠে প্রশাসনের কর্মকর্তারা কাজ করছেন। সর্বাত্মক লকডাউন বাস্তবায়ন, স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ এবং লোকসমাগম ঠেকাতে শহরের বিভিন্ন রাস্তা ও কাঁচাবাজারগুলোতে ঘুরতে দেখা গেছে জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদা জাহানকে।

বৃহস্পতিবার শহরের চাষাড়া, শিবু মার্কেট, জালকুড়ি, সাইনবোর্ড, দিগু বাবুর বাজার সহ বিভিন্ন পয়েন্টে তার নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হয়।

এ সময় দেখা যায়, সরকার নির্ধারিত লকডাউনে যারা বিভিন্ন অজুহাতে-অকারণে বাড়ির বাইরে বের হয়ে এবং রিকশাভ্যান ও মোটরসাইকেল নিয়ে বের হচ্ছে তাদের বুঝিয়ে বাড়ি পাঠান এ নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট। নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের বাইরে যেসকল পণ্যের দোকান বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা ছিলো তাদেরকে সরকারের নির্দেশ মেনে লকডাউন কার্যকরে দোকান না খোলার আহবান জানান তিনি।

একইসাথে এসকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন খাবারের হোটেল ও নিত্য প্রয়োজনী পণ্যের দোকান মালিক-শ্রমিক, পথচারীদের করোনার প্রতিরোধে মাস্কপড়া সহ সরকারী সকল নির্দেশনা মানতে আরো বেশী সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন। এসময় যাদের মাস্ক ছিলো না তাদের জরিমানা করা সহ মাস্ক বিতরণ করেন ৩৬ তম বিসিএস ব্যাচের এ কর্মকর্তা।

এ সময় সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদা জাহান জানান, করোনা সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে সারা দেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও দ্বিতীয় দিনের মতো লকডাউন চলছে। এই লকডাউন বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসক স্যারের নির্দের্শে আমরা জেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তারা মাঠে কাজ করছি এবং সবাই আমাদের সহযোগিতা করছে। তারপরও যারা কারণে-অকারণে ঘরের বাইরে বের হচ্ছে, তাদের আমরা সহনশীলভাবে বুঝিয়ে বাড়ি পাঠাচ্ছি। যারা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে বের হচ্ছে তাদের অবশ্যই মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের আহŸান জানাই।

তিনি আরও বলেন, কাঁচাবাজারগুলোতে যাতে সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করে সেজন্য সবাইকে আমরা সচেতন করছি। পাড়া-মহল্লায় যারা আড্ডা দিচ্ছে আমরা তাদেরকেও বুঝিয়ে লকডাউন মেনে বাড়িতে থাকার অনুরোধ জানাচ্ছি।

ম্যাজিট্রেট মাহমুদা জাহান সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহŸান জানিয়ে বলেন জনস্বার্থে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে এবং সরকারি নির্দেশনা অমান্য করলে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান।

এছাড়াও জেলা প্রশাসনের আরো বেশ কয়েকজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটরাও শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করেন বলে জানা গেছে।

0