‘শামীম ওসমান’র স্লোগানে খেলে দিলেন ‘দিদি’

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: কয়েক মাস ধরেই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যজুড়ে নারায়ণগঞ্জের সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের ‘খেলা হবে’ স্লোগানে তোলপাড় শুরু হয়েছিল। এখন সেই খেলারই ফলাফলে জ‌য় ধ্বনি  । রাজ্যের এবারের নির্বাচনে ২১৩টি আসনে জয় পেয়েছে ‘দিদি’, তথা তৃণমূল কংগ্রেস। তাই এপাড় বাংলায় রবিবার দিনভর অনেকেরই মুখে মুখে ছিল, ‘শামীম ওসমানের সংলাপে খেলে দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের ‘দিদি’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়’।

বিধানসভা ভোটের আগে ‘খেলা হবে’ সংলাপ ছড়িয়ে পরে। শুরুটা করেন রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা অনুব্রত মণ্ডল। তারপর অন্য নেতাদের মুখেও শোনা গেছে স্লোগানটি। রাজনীতির গণ্ডি ছাড়িয়ে আম জনতার মুখে মুখে ঘুরছে ওই স্লোগান।

প্রায় বছর আটেক আগে নারায়ণগঞ্জের একটি জনসভায় শামীম ওসমান বলেছিলেন, ‘২৪ তারিখের পরে আসো, খেলব, খেলা হবে।’ এর পর বাংলাদেশ ‘খেলা হবে’ বাক্যটি স্যোশাল মিডিয়ায় ব্যপক ভাইরাল হয়ে যায়। যা এখনও পর্যন্ত যে কোন ব্যক্তির স্লোগানের র্শীষ ব্র্যান্ডিং।

তৃণমূলের ছাত্র-যুব সংগঠন সূত্রের দাবি, জানুয়ারি মাসে উত্তরবঙ্গের একটি সভায় এই স্লোগান নিয়ে ছড়া বানাতে দেখা যায় তৃণমূলের মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্যকে।

পরে দেবাংশু ফেসবুকে একট কবিতা লেখেন। যার প্রথম স্তবকটি হল, ‘বাইরে থেকে বর্গী আসে, নিয়ম করে প্রতিমাসে/ আমিও আছি, তুমিও রবে/ বন্ধু এবার খেলা হবে।’ এরপর স্লোগানটি এতই জনপ্রিয় হয়েছে যে, ডিজে পার্টির গানেও তৃণমূলের নানা সভায় উল্লাস করতে দেখা গিয়ে ছিল শাসকদলের কর্মীদের। পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনে ভোট গণনা চলছে। আজ রোববার দুপুর পর্যন্ত ২৯৪ আসনের মধ্যে ২৯২টি আসনের আনুমানিক ফল ঘোষণা করেছে এনডিটিভি।

এতে ২১৩টি আসনে এগিয়ে আছে তৃণমূল কংগ্রেস।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানিয়েছেন বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও রাজনৈতিক দলের নেতারা।

এ নিয়ে গণমাধ্যমে শামীম ওসমান নিজেও সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। ডয়চে ভেলের সঙ্গে আলাপে তিনি তার সেই বক্তৃতার প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বলেন, তখন ২০১৩-১৪ সাল, স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি এবং বিএনপি’র নেতৃত্বে ব্যাপক জ্বালাও পোড়াও চলছিল। ওই স্লোগান ছিল তাদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম হিসেবে, শান্তির পক্ষে, গণতন্ত্রের পক্ষে ও সকল প্রকার সাম্প্রদায়িকতার বিপক্ষে।

0