শিক্ষা রূপরেখা বাতিলের দাবিতে না.গঞ্জে ছাত্র ফ্রন্টের সমাবেশ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: জাতীয় শিক্ষা রূপরেখা ২০২০ বাতিলের দাবিতে নারায়ণগঞ্জে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সমাবেশ ও মিছিল হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি মুন্নি সরদারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহম্মেদ রাতুলের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলার সহ-সভাপতি রিনা আক্তার, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক নাছিমা সরদার, সদস্য শাহ মোঃ মাঞ্জুরুল।

নেতৃবৃন্দ বলেন, এই কারিকুলামে কিছু ভালো ভালো কথার আড়ালে শিক্ষার বৈষম্য ব্যয় বৃদ্ধি ও রাষ্ট্রের দায়িত্বের প্রশ্ন এড়িয়ে গিয়ে কৌশলে শিক্ষা ব্যবসাকেই উৎসাহিত ও পৃষ্ঠপোষকতা করা হচ্ছে। একজন শিক্ষার্থী যাতে একটা নির্দিষ্ট স্তর পর্যন্ত সামগ্রিকতায় জ্ঞান লাভ করে, সেই কথা বলে প্রস্তাবিত শিক্ষাক্রমে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত একই বিভাগের কথা বলা হয়েছে। পূর্বে যেভাবে ৯ম শ্রেণিতে বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসা শিক্ষা এই ৩ বিভাগে ভাগ হয়ে যেত, এখন এ বিভাগটা চলে যাচ্ছে উচ্চ মাধ্যমিক থেকে। তবে এতে বিজ্ঞান শিক্ষার পরিসর কমে এক তৃতীয়াংশে নামিয়ে আনার প্রস্তাব করা হয়েছে। এর বদলে সেখানে যুক্ত করা হচ্ছে ভালো থাকা, ্ধর্ম শিক্ষা ,জীবন ও জীবিকা এরকম নতুন কিছু বিষয়। ফলে বইয়ের বোঝা বাড়লেও জ্ঞান ও দক্ষতা উঠার সম্ভাবনা ক্ষীন। অল্প বিজ্ঞান পড়ে মাধ্যমিক শেষ করে উচ্চ মাধ্যমিকে গিয়ে হঠাৎ বিজ্ঞান বিভাগের পরিসর বেড়ে গেলে শিক্ষার্থীরা চাপের মুূখে পড়বে। শাসকদের পরিকল্পনার ফলে এমনিতেই বিজ্ঞান পড়ায় শিক্ষার্থীদের আগ্রহ দিন দিন কমছে। এরপর আবার এই নতুন চাপ এড়াতে শিক্ষার্থীরা বিজ্ঞান বিভাগ নিতে আরো বেশি নিরুৎসাহিত হবে।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, একই ধারার নামে সবকিছু থেকে এক চিমটি এক চিমটি করে নিয়ে জগাখিচুড়ি পাকানো হচ্ছে। কিন্তু একই ধারার শিক্ষা জগাখিচুড়ি শিক্ষা এক নয়। আলাদা করে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থাকা সত্ত্বেও প্রস্তাবিত শিক্ষাক্রমে কারিগরি শিক্ষার দিকে অত্যাধিক জোর দেওয়া হয়েছে।

নেতৃবৃন্দ ছাত্র ও শিক্ষা স্বার্থবিরোধী এই শিক্ষার কারিকুলাম প্রণয়নের সিদ্ধান্ত বাতিল করে ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক ও শিক্ষানুরাগী মানুষের প্রতিনিধিদের মতামত নিয়ে সর্বজনীন, বিজ্ঞানভিত্তিক, সেক্যুলার, একইপদ্ধতির, গনতান্ত্রিক শিক্ষানীতি ও কারিকুলাম প্রণয়নের জোর দাবি জানান।