শুরু হয়েছে নির্বাচনী ব্যবসা: সেলিম ওসমান

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান বলেছেন, আমাদের মধ্যে কেউ কেউ আছে যারা ভালো কাজে বাধাঁ সৃষ্টি করছেন। আমাদের নারায়ণগঞ্জটাকে খুব ভালো লাগবে, কারণ আমরা এতো বড় একটা হসপিটাল পেতে যাচ্ছি। সেই জায়গায় মানুষ বাধাঁ সৃষ্টি করছে। আরেকটা ব্যবসা শুরু হয়েছে সেটি হলো নির্বাচনী ব্যবসা। আমরা এই মুহুর্তে নির্বাচন নিয়ে কোনো চিন্তাই করছি না, করোনা এই মহামারির সময়ে নির্বাচন নিয়ে কোনো চিন্তা করা যেতে পারে না। আমাদের যারা নির্বাচন করবে তাদের আমি স্পষ্ট বলে দিয়েছিলাম, তোমরা যদি কেউ কোনো ভুল করে থাকো তাহলে রোজার মাসে ভুলভ্রান্তি দূর করো।

বুধবার (১৬ জুন) বাদ আছর নারায়ণগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলীর আশমু রোগমুক্তি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘আজকে এমন অবস্থা হয়ে গেছে যে, যারা ওয়াজ করে তাদের এখন হোটেলে পাওয়া যায়। পত্রিকায় দেখলাম কোনো একজনের ভাগিনা কতবড় অঘটন ঘটিয়ে বসছে। এই অবস্থায় আল্লাহ কিভাবে আমাদের রহমত করবে, যেখানে আমরা যদি এতো অপরাধের সাথে জড়িত হয়ে থাকি। তারমধ্যে আবার নির্বাচনি ব্যবসা ‘আমি তোমাকে নমিনেশন পাঠিয়ে দিবো’। এটা চিন্ত করে না যে, সে ওই নির্বাচন পর্যন্ত থাকবে কিনা। সরকার আইন করে দিচ্ছে ,যদি কারো ডিগ্রী না থাকে তাহলে সে নির্বাচন করতে পারবে না। অথচ যে কিনা জিবনেও স্কুলে যায়নি তাকে নিয়েও নির্বা্চনী প্রচারণা শুরু হয়ে গেছে।

সেলিম ওসমান বলেন, আজকে মানুষের মধ্যে হিংসা জন্মে গেছে। প্রশ্ন করে এমন লোক যে কি জন্যে তাদের নামে রাস্তা এবং ব্রীজের দেয়া হয়? এরকম অশিক্ষিত মানুষ এখানে থাকে আবার সে নিউজগুলো হয়। আমরা ইচ্ছা করলে মামলা মোকাদ্দমায় যেতে পারতাম। আমি আমার পরিবার থেকে মামলা মোকাদ্দমায় যেতে পারি। কিন্তু আমি তো শয়তান মেরে ফেলতে পারবো না।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলার ডেপুটি কমান্ডার মো. আলী, নুরুল হুদা, সদর উপজেলা কমান্ডার শাহজাহান ভূইয়া জুলহাস, চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল হাই, সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান বাচ্চু, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সাজনু, আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী সংগঠনের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা নূর উদ্দিন আহমেদেসহ প্রায় শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা।

0